পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (পঞ্চদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/২৬৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পরিশেষ যাত্রী যে-কাল হরিয়া লয় ধন সেই কাল করিছে হরণ সে ধনের ক্ষতি । তাই বসুমতী নিত্য আছে বস্কন্ধরা । একে একে পাখি যায়, গানের পসরা কোথাও না হয় শূন্ত, আঘাতের অস্ত নেই, তবুও অক্ষুণ্ণ বিপুল সংসার । দুঃখ শুধু তোমার, আমার, নিমেষের বেড়াঘেরা এখানে ওখানে । সে-বেড়া পারায়ে তাহা পৌছায় না নিখিলের পানে । ওরে তুমি, ওরে আমি, যেখানে তোদের যাত্রা একদিন যাবে থামি সেখানে দেখিতে পাবি ধন আর ক্ষতি তরঙ্গের ওঠা নামা, একই খেলা, একই তার গতি । কান্না অার হাসি এক বীণাতন্ত্রীতারে একই গানে উঠিছে উচ্ছ্বাসি, একই শমে এসে মহামৌনে মিলে যায় শেষে । তোমার হৃদয়তাপ তোমার বিলাপ চাপা থাক আপনার ক্ষুদ্রতার তলে । যেইখানে লোকযাত্র চলে সেখানে সবার সাথে নির্বিকার চলো একসারে, দেখা দাও শাস্তিসৌম্য আপনারে— যে-শাস্তি মৃত্যুর প্রাস্তে বৈরাগ্যে নিভৃত, আত্মসমাহিত ; $ SQ>