পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (পঞ্চদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/২৭০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


২৫৬ রবীন্দ্র-রচনাবলী উৎসবশেষের যেন অবসন্ন অঙ্গুলির বীণাগুঞ্জরণ । শিশিরমন্থর বায়ু, অশথের শাখা অকম্পিত । অদূরে নদীর শীর্ণ স্বচ্ছ ধারা কলশব্দহীন, শূন্তগুহ-পানে ক্লান্তগতি বিরহিণী বধুর মতন। হে জরতী মহাশ্বেতা, দেখেছি তোমাকে জীবনের শারদ অম্বরে বৃষ্টিরিক্ত শুচিশুক্ল লঘু স্বচ্ছ মেঘে । নিম্নে শস্তে ভরা খেত দিকে দিকে, নদী ভরা কুলে কুলে, পুর্ণতার স্তব্ধতায় বসুন্ধরা স্নিগ্ধ সুগম্ভীর হে জরতী, দেখেছি তোমাকে সত্তার অন্তিম তটে, যেখানে কালের কোলাহল প্রতিক্ষণে ডুবিছে অতলে। নিস্তরঙ্গ সেই সিন্ধুনীরে তীর্থস্নান করি? রাত্রির নিকষকৃষ্ণ শিলাবেদিমূলে এলোচুলে করিছ প্ৰণাম পরিপূর্ণ সমাপ্তিরে । চঞ্চলের অন্তরালে অচঞ্চল যে শান্ত মহিমা চিরন্তন, চরম প্রসাদ তার