পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (পঞ্চদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/২৭৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পরিশেষ পেয়েছে সে ধরণীর প্রাণরস, সুগভীর সুবিপুল আয়ু, পেয়েছে সে আকাশের নিত্য আশীর্বাদ । পেয়েছে সে কীটের দংশন । শান্ত বিদ্রপবাণ উছাত করি এসেছিল সংসার, নাগাল পেল না তার । আপনার মাঝে আছে সে অনেক দূরে। শাস্ত মনের স্তব্ধ গহনে ধ্যানের বীণার স্বরে রেখেছে তাহারে ঘিরি। হৃদয়ে তাহার উচ্চ উদয়গিরি। সেথা অন্তরলোকে সিন্ধুপারের প্রভাত-আলোক জলিছে তাহার চোখে । সে আলোকে এই বিশ্বের রূপ অপরূপ হয়ে জাগে । তার দৃষ্টির আগে বিরূপ বিকল খণ্ডিত যত-কিছু বিদ্রোহ ছেড়ে বিরাটের পায়ে করে এসে মাথা নিচু। সিন্ধুতীরের শৈলতটের পরে হিংসামুখর তরঙ্গদল যতই আঘাত করে, ২৬৩