পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (পঞ্চদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৩৯৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


లy: রবীন্দ্র-রচনাবলী নন্দিনী। থাকতেই হবে ? মানুষ হয়ে থাকবার জন্তে যদি মরতেই হয়, তাতেই বা দোষ কী । অধ্যাপক। আবার সেই রাগ? সেই রক্তকরবীর ঝংকার ? খুব মধুর, তবুও যা সত্য তা সত্য । থাকবার জন্তে মরতে হবে, এ কথা বলে সুখ পাও তো বলে । কিন্তু থাকবার জন্যে মারতে হবে, এ কথা যারা বলে তারাই থাকে। তোমরা বল এতে মনুষ্ঠত্বের ক্রটি হয়, রাগের মাথায় ভুলে যাও এইটেই মনুষ্যত্ব। বাঘকে খেয়ে বাঘ বড়ো হয় না, কেবল মানুষই মাহুষকে খেয়ে ফুলে ওঠে । পালোয়ানের প্রবেশ নন্দিনী । আহা, ওই দেখো, কি-রকম টলতে টলতে আসছে। পালোয়ান, এইখানে শুয়ে পড়ে। অধ্যাপক, দেখো-না কোথায় চোট লেগেছে। অধ্যাপক। বাইরে থেকে চোটের দাগ দেখতেই পাবে না। পালোয়ান। দয়াময় ভগবান, জীবনে যেন একবার জোর পাই, আর একদিনের জন্যেও | অধ্যাপক । কেন হে । পালোয়ান । কেবল ওই সর্দারটার ঘাড় মটকে দেবার জন্যে । অধ্যাপক। সর্দার তোমার কী করেছে । পালোয়ান। সমস্তই সেই তো ঘটিয়েছে । আমি তো লড়তে চাই নি। আজ বলে বেড়াচ্ছে, আমারি দোষ । অধ্যাপক। কেন । ওর কী স্বাৰ্থ । পালোয়ান। সমস্ত পৃথিবীকে নিঃশক্তি করতে পারলে তবে ওরা নিশ্চিন্ত হয়। দয়াময় হরি, একদিন যেন ওর চোখদুটো উপড়ে ফেলতে পারি, যেন ওর জিভটা টেনে বের করি । নন্দিনী। তোমার কি-রকম বোধ হচ্ছে, পালোয়ান। পালোয়ান । বোধ হচ্ছে ভিতরটা ফাপা হয়ে গেছে। এরা কোথাকার দানব, জাদু জানে, শুধু জোর নয়, একেবারে ভরসা পর্যন্ত শুষে নেয় – যদি কোনো উপায়ে একবার – হে কল্যাণময় হরি, আঃ যদি একবার— তোমার দয়া হলে কী না হতে পারে। সর্দারের বুকে যদি একবার দাত বসাতে পারি। নন্দিনী । অধ্যাপক, ওকে ধরে তুমি, দুজনে মিলে আমাদের বাসায় নিয়ে যাই । অধ্যাপক। সাহস করি নে, নন্দিনী । এখানকার নিয়মমতে তাতে অপরাধ হবে ।