পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (পঞ্চদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৪০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রবীন্দ্র-রচনাবলী বনের মন্দির-মাঝে তরুর তল্লুরা বাজে, অনস্তের উঠে স্তবগান, চক্ষে জল বহে যায়, নম্র হল বন্দনায় আমার বিস্মিত মনপ্রাণ । দেবতার বর কত জন্ম কত জন্মান্তর অব্যক্ত ভাগ্যের রাতে লিখেছে আকাশ-পাতে এ-দেখার আশ্বাস-অক্ষর । অস্তিত্বের পারে পারে এ-দেখার বারতারে বহিয়াছি রক্তের প্রবাহে । দূর শূন্যে দৃষ্টি রাখি’ আমার উন্মনা আঁখি এ-দেখার গৃঢ় গান গাহে । বোলো আজি তারে,— ‘চিনিলাম তোমারে আমারে । হে অতিথি, চুপে চুপে বারস্বার ছায়ারূপে এসেছ কম্পিত মোর দ্বারে । কত রাত্রে চৈত্রমাসে, প্রচ্ছন্ন পুষ্পের বাসে কাছে-আসা নিশ্বাস তোমার স্পন্দিত করেছে জানি আমার গুণ্ঠনখানি, কাদায়েছে সেতারের তার ।”