পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (পঞ্চদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৪০৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ტჯ» 8 রবীন্দ্র-রচনাবলী ফাগুলাল। খবরদার । ওর গায়ে হাত দাও যদি তা-হলে— নন্দিনী । ফাগুলাল, তুমি থামে। ও ভীরু, আমাকে ভয় করে তাই আমাকে মারতে চায়। আমি ওর মারকে ভয় করিনে। কী করতে পারে করুক কাপুরুষ । গোকুল। ফাগুলাল, এখনো তোমার চৈতন্য হয় নি । সর্দারকেই তুমি শক্র বলে জান ! তা হ’ক যে-শত্রু সহজ শত্রু তাকে শ্রদ্ধা করি, কিন্তু তোমাদের ওই মিষ্টিমুখী স্বন্দরী— নন্দিনী । সর্দারকে তোমার শ্রদ্ধা ! পায়ের তলাটাকে পায়ের তলার কাদার শ্রদ্ধা যে-রকম। যে দাস সে কখনো শ্রদ্ধা করতে পারে ? ফাগুলাল। গোকুল, তোমার পৌরুষ দেখাবার সময় এসেছে। কিন্তু বালিকার কাছে নয় । চলে আমার সঙ্গে । [ ফাগুলাল চন্দ্রা ও গোকুলের প্রস্থান একদল লোকের প্রবেশ নন্দিনী । ওগো, কোথায় চলেছ তোমরা । প্রথম । ধ্বজাপুজার নৈবেদ্য নিয়ে চলেছি। নন্দিনী । রঞ্জনকে দেখেছ ? দ্বিতীয়। তাকে পাচদিন আগে একবার দেখেছিলুম, আর দেখি নি। ওই ওদের জিজ্ঞাসা করো, হয়তো বলতে পারবে । নন্দিনী । ওরা কারা। তৃতীয় । ওরা সর্দারের ভোজে মদ নিয়ে যাচ্ছে । { এই দলের প্রস্থান অন্ত দলের প্রবেশ নন্দিনী। ওগো লালটুপিরা, রঞ্জনকে তোমরা দেখেছ ? প্রথম। সেদিন রাতে শঙ্কুমোড়লের বাড়িতে দেখেছি। নন্দিনী । এখন কোথায় আছে সে ? দ্বিতীয়। ওই-যে সর্দারনীদের ভোজে সাজ নিয়ে চলেছে, ওদের জিজ্ঞাসা করে, ওরা অনেক কথা শুনতে পায় যা আমাদের কানে পৌছয় না । [ এই দলের প্রস্থান