পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (পঞ্চদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৫৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


8* রবীন্দ্র-রচনাবলী দুজনে মিলি সাজায়ে ডালি বসিহ একাসনে, নটরাজেরে পুজিন্তু একমনে । কুহেলি গেল, আকাশে আলো দিল-যে পরকাশি ধূর্জটির মুখের পানে পার্বতীর হাসি। সন্ধ্যাতারা উঠিল যবে গিরিশিখর-’পরে, একেলা ছিলে ঘরে । কটিতে ছিল নীল দুকুল, মালতীমালা মাথে, কাকন দুটি ছিল দুখানি হাতে চলিতে পথে বাজায়ে দিতু বঁাশি, “অতিথি আমি”, কহিনু দ্বারে আসি । তরাসভরে চকিতকরে প্রদীপখানি জেলে চাহিলে মুখে, কহিলে, “কেন এলে”। কহিতু আমি, "রেখে না ভয় মনে, তনু দেহটি সাজাব তব আমার আভরণে”। চাহিলে হাসিমুখে, আধোচাদের কনকমালা দোলাহু তব ৰুক মকর চূড় মুকুটখানি কবরী তব ঘিরে পরায়ে দিতু শিরে । জালায়ে বাতি মাতিল সখীদল, তোমার দেহে রতনসাজ করিল ঝলমল । মধুর হল বিধুর হল মাধবী নিশীথিনী, আমার তালে তোমার নাচে মিলিল রিনিঝিনি । পুর্ণ-চাদ হাসে আকাশ-কোলে, আলোক-ছায়া শিব-শিবানী সাগরজলে দোলে। ফুরাল দিন কখন নাহি জানি, সন্ধ্যাবেলা ভাসিল জলে আবার তরীখানি । সহসা বায়ু বহিল প্রতিকুলে, প্ৰলয় এল সাগরতলে দারুণ ঢেউ তুলে ।