পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (পঞ্চদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৬৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


& 8 রবীন্দ্র-রচনাবলী তোমার পাখারে আমি রুদ্ধ করি বুঝি, সে-বন্ধনে তোমারেই পাই না তো খুজি, তুমি তো ছায়ার মহ, প্রভাতবিলাসী, আলোতেই তোমার প্রকাশ, তোমার ডানার ছন্দে তব উচ্চ হাসি যাক চলে ভেদিয়া আকাশ । জানি, যদি লুব্ধ মনে কৃপণতা করি, ঐশ্বর্ষেও দৈন্ত না ঘুচায়, ব্যর্থ ভাণ্ডারের তবে রহিব প্রহরী, বঞ্চনা করিব আপনায় । আত্মা যেথা লুপ্ত থাকে সেথা উপচ্ছায়। মুগ্ধ চেতনার পরে রচে তার মায়া, তাই নিয়ে ভুলাব কি আমার জীবন। গাথিব কি বুদ্ধদের হার। তোমারে আড়াল ক’রে তোমার স্বপন মিটাবে কি আকাজক্ষা আমার । বিরাজে মানবশৌর্যে সূর্যের মহিমা, মর্ত্যে সে তিমিরজয়ী প্রভূ, অজেয় আত্মার রশ্মি, তারে দিবে সীমা প্রেমের সে ধর্ম নহে কভু । যাও চলি রণক্ষেত্রে, লও শঙ্খ তুলি, পশ্চাতে উডুক তব রথচক্ৰধূলি, নির্দয় সংগ্রাম-অস্তে মৃত্যু যদি আসি দেয় ভালে অমৃতের টিকা, জানি যেন সে-তিলকে উঠিল প্রকাশি আমারো জীবনজয়লিখা । আমার প্রাণের শক্তি প্রাণে তব লহো, মোর দুঃখষজ্ঞের শিখায়