পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (পঞ্চদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৭৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রবীন্দ্র-রচনাবলী পিয়ালী চাহনি তাহার, সব কোলাহল হ’লে সারা সন্ধ্যার তিমিরে ভাসা তারা । মৌনখানি স্বমধুর মিনতিরে লতায়ে লতায়ে যেন মনের চৌদিকে দেয় ঘিরে, নির্বাক চাহিয়া থাকে নাহি পায় ভেবে কেমন করিয়া কী-যে দেবে। দুয়ার-বাহিরে । আসে ধীরে, ক্ষণেক নীরব থেকে চলে যায় ফিরে । নাও যদি কয় কথা মনে যেন ভরি দেয় স্বস্নিগ্ধ মমতা । পায়ের চলায় কিছু যেন দান করে ধূলির তলায়। তারে কিছু করিলে জিজ্ঞাসা, কিছু বলে, কিছু তবু বাকি থাকে ভাষা । নিঃশব্দে খুলিয়া দ্বার অঞ্চলে আড়াল করি সে যেন কাহার আনিয়াছে সৌভাগ্যের থালি,— নাম কি পিয়ালী । দিয়ালী জনতার মাঝে দেখিতে পাই নে তারে, থাকে তুচ্ছ সাজে। ললাটে ঘোমটা টানি দিবসে লুকায়ে রাখে নয়নের বাণী । রজনীর অন্ধকার তুলে দেয় আবরণ তার।