পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (পঞ্চদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৮১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


মহুয়া সাগরী বাহিরে সে তুরস্ত আবেগে উচ্ছলিয়া উঠে জেগে,— উচ্চহাস্যতরঙ্গ সে হানে স্বর্যচন্দ্র-পানে । পাঠায় অস্থির চোখ— আলোকের উত্তরে আলোক । কতু অন্ধকারপুঞ্জে দেখা দেয় ঝঙ্কার ভ্ৰকুটি, ক্ষণে ক্ষণে আন্দোলনে প্রচও অধৈর্যবেগে তটের মর্যাদা ফেলে টুটি । গভীর অন্তর তার নিস্তব্ধ গম্ভীর, কোথা তল, কোথা তীর ; অগাধ তপস্যা যেন রেখেছে সঞ্চিত করি,— নাম কি সাগরী । জয়তী যেন তার চক্ষু-মাঝে উদ্যত বিরাজে মহেশের তপোবনে নন্দীর তর্জনী । ইন্দ্রের অশনি মৌনে তার ঢাকা ; প্রগণ তার অরুণের পাখা মেলিল দিনের বক্ষে তীব্র অতৃপ্তিতে দুঃসহ দীপ্তিতে । সাধক দাড়ায় তার কাছে— সহসা সংশয় লাগে যোগ্যতা কি আছে ; দুঃসাধ্যসাধন-তরে পথ খুজে মরে ।