পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ষোড়শ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১১৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


γίι | t | * * و b: نين" Ao i রবীন্দ্র-রচনাবলী মুক্তি বাজিরাও পেশোয়ার অভিযেক হবে কাল সকালে কীর্তনী এসেছে গ্রামের থেকে, মন্দিরে ছিল না তার স্থান । সে বসেছে অঙ্গনের এক কোণে পিপুল গাছের তলায় । একতার বাজায় আর কেবল সে ফিরে ফিরে বলে, "ঠাকুর, তোমায় কে বসালে কঠিন সোনার সিংহাসনে ৷” রাত তখন দুই প্রহর, শুক্লপক্ষের চাদ গেছে অস্তে । দূরে রাজবাড়ির তোরণে বাজছে শাখ শিঙে জগঝম্প, জলছে প্রদীপের মালা । কীর্তনী গাইছে, ‘তমালকুঞ্জে বনের পথে শু্যামল ঘাসের কান্না এলেম শুনে, ধুলোয় তারা ছিল যে কান পেতে, পায়ের চিহ্ন বুকে পড়বে অঁাক এই ছিল প্রত্যাশ৷ ” আরতি হয়ে গেছে সারা— মন্দিরের দ্বার তখন বন্ধ, ভিড়ের লোক গেছে রাজবাড়িতে । কীর্তনী আপন মনে গাইছে,