পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ষোড়শ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/২১৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চিরকুমার-সভা r २> > রসিক । পিতা আমার রসবোধ সম্বন্ধে পরিচয় পাবার পূর্বেই রসিক নাম রেখেছিলেন, এখন পিতৃসত্যপালনের জন্য আমাকে রসিকতার চেষ্টা করতে হয়, তার পরে ‘যত্বে কৃতে যদি ন সিধ্যতি কোহক্র দোষঃ’ । [ অক্ষয়ের প্রস্থান পুরুষবেশী শৈলের প্রবেশ শৈল আসিয়া সকলকে নমস্কার করিল। ক্ষীণদৃষ্টি চলমাধববাবু ঝাপসাভাবে তাহাকে দেখিলেন— 劇 বিপিন ও শ্ৰীশ তাহার দিকে চাহিয়া রহিল শৈলের পশ্চাতে দুইজন ভূত্য কয়েকটি ভোজনপত্রে হাতে করিয়া উপস্থিত হইল শৈল ছোটো ছোটে রুপার থালীগুলি লইয়া সাদা পাথরের টেবিলের উপর সাজাইতে লাগিল রসিক । ইনি আপনাদের সভার আর একটি নবীন সভ্য - এর নবীনতা সম্বন্ধে কোনো তর্ক নেই। ঠিক আমার বিপরীত। ইনি বুদ্ধির প্রবীণত বাহ নবীনতা দিয়ে গোপন করে রেখেছেন। আপনারী কিছু বিস্মিত হয়েছেন দেখছি— হবার কথা। একে দেখে মনে হয় বালক, কিন্তু আমি আপনাদের কাছে জামিন রইলুম– ইনি বালক নন | চন্দ্রবাবু। এর নাম ? রসিক । শ্ৰীঅবলাকাস্ত চট্টোপাধ্যায়। ঐশ | অবলাকান্ত ? রসিক । নামটি আমাদের সভায় চলতি হবার মতো নয় স্বীকার করি। নামটির প্রতি আমারও বিশেষ মমত্ব নেই— যদি পরিবর্তন করে বিক্রমসিংহ বা ভীমসেন বা অন্য কোনো উপযুক্ত নাম রাখেন তাতে উনি আপত্তি করবেন না। যদিচ শাস্ত্রে আছে বটে ‘স্বনাম পুরুষো ধন্য’— কিন্তু উনি অবলাকান্ত নামটির দ্বারাই জগতে পৌরুষ অর্জন করতে ব্যাকুল নন। শ্ৰীশ । বলেন কী মশায়। নাম তো আর গায়ের বস্ত্র নয় যে, বদল করলেই ङ्ल । রসিক। ওটা আপনাদের একেলে সংস্কার শ্ৰীশবাবু, নামটাকে প্রাচীনেরা পোশাকের মধ্যেই গণ্য করতেন। দেখুন-না কেন, অর্জুনের পিতৃদত্ত নাম কী ঠিক করে বলা শক্ত – পার্থ, ধনঞ্জয়, সব্যসাচী, লোকের যখন যা মুখে আসত তাই বলেই ডাকত । দেখুন, নামটাকে আপনার বেশি সত্য মনে করবেন না ; ওঁকে যদি ভুলে আপনি অবলাকাস্ত নাও বলেন উনি লাইবেলের মকদ্দমা আনবেন না । শ্ৰীশ । ( হাসিয়া) আপনি যখন এতটা অভয় দিচ্ছেন তখন অত্যন্ত নিশ্চিন্তু