পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ষোড়শ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/২২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


>之 রবীন্দ্র-রচনাবলী এইখানটায় একটুখানি তন্দ্র এল । । হঠাৎ-বর্ষণে চারি দিক থেকে ঘোলা জলের ধারা যেমন নেমে আসে, সেইরকমটা । তবু ঝোঁকে ঝেকে উঠে টলমল করে কলম চলছে, যেমনটা হয় মদ থেয়ে নাচতে গেলে । তবু শেষ করব এ চিঠি, কুয়াশার ভিতর দিয়েও জাহাজ যেমন চলে, কল বন্ধ করে না । বিষয়টা হচ্ছে আমার নাটক । বন্ধুদের ফর্মাশ, ভাষা হওয়া চাই অমিত্রাক্ষর । অামি লিখেছি গদ্যে । পদ্য হল সমুদ্র, সাহিত্যের আদিযুগের স্বষ্টি । তার বৈচিত্র্য ছন্দতরঙ্গে, কলকল্লোলে ! গদ্য এল অনেক পরে । বাধা ছন্দের বাইরে জমালো অসের । স্বত্ৰী-কুশ্ৰী ভালোমন্দ তার আঙিনায় এল ঠেলাঠেলি করে । ছেড়া কঁথা অণর শাল-দোশালা এল জড়িয়ে মিশিয়ে, স্বরে বেস্বরে ঝনঝন ঝংকার লাগিয়ে দিল । গর্জনে ও গানে, তাওবে ও তরল তালে আকাশে উঠে পড়ল গদ্যবাণীর মহাদেশ । কখনো ছাড়লে অগ্নিনিশ্লাস, কখনো ঝরালে জলপ্রপাত । কোথাও তার সমতল, কোথাও অসমতল ; " কোথাও দুর্গম অরণ্য, কোথাও মরুভূমি ।