পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ষোড়শ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৩৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


*ఇe ঘাটের উপর একলা ব’সে । সমস্ত বিকেল বেলাট । তারি ফঁাকের ভিতর দিয়ে দেখতে পাই লিখছে চিঠি নৃতন বধূ, ফেলছে ছিড়ে, লিখছে আবার । একটুখানি হাসি দেখা দেয় আমার মুখে, আবার একটুখানি নিশ্বাসও পড়ে । త్రాtJ రిరిసె বাসা ময়ূরাক্ষী নদীর ধারে । আমার পোষা হরিণে বাছুরে যেমন ভাব তেমনি ভাব শালবনে আর মহুয়ায় । ওদের পাতা ঝরছে গাছের তলায়, উড়ে পড়ছে আমার জানলাতে । তালগাছটা খাড়া দাড়িয়ে পুবের দিকে, সকালবেলাকার বাকা রোদুর তারি চোরাই ছায় ফেলে আমার দেয়ালে । নদীর ধারে ধীরে পায়ে-চলা পথ রাঙা মাটির উপর দিয়ে, কুড়চির ফুল ঝরে তার ধুলোয় ; বাতাবি-লেবু-ফুলের গন্ধ ঘনিয়ে ধরে বাতাসকে ; জারুল পলাশ মাদারে চলেছে রেষারেষি ; শজনে ফুলের ঝুরি দুলছে হাওয়ায় ; চামেলি লতিয়ে গেছে বেড়ার গায়ে গায়ে, ময়ূরাক্ষী নদীর ধারে । २१