পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (সপ্তম খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১১৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কাহিনী । অন্নদা কহিল ডাকি, ঠাকুরমশায়, বড়ো যে দুরস্ত ছেলে রাখাল আমার, কে তাহারে সামালিবে ? জন্ম হতে তার মাসি ছেড়ে বেশিক্ষণ থাকে নি কোথাও ; কোথা এরে নিয়ে যাবে, ফিরে দিয়ে যাও । রাখাল কহিল, 'মাসি, যাইব সাগরে, আবার ফিরিব আমি P বিপ্র ক্ষেহভরে কহিলেন, "যতক্ষণ অামি আছি ভাই, তোমার রাখাল লাগি কোনো ভয় নাই । এখন শীতের দিন শান্ত নদীনদ, অনেক যাত্রীর মেলা, পথের বিপদ কিছু নাই ; যাতায়াতে মাস দুই কাল, তোমারে ফিরায়ে দিব তোমার রাখাল |’ শুভক্ষণে দুর্গ স্মরি নৌকা দিল ছাড়ি, দাড়ায়ে রহিল ঘাটে যত কুলনগরী আশ্রচোখে । হেমস্তের প্রভাতশিশিরে ছলছল করে গ্রাম চুর্ণানদীতীরে । যাত্রীদল ফিরে আসে ; সাঙ্গ হল মেলা । তরণী তীরেতে বাধা অপরাহ্লবেলা জোয়ারের আশে । কৌতুহল অবসান, কঁাদিতেছে রাখালের গৃহগত প্রাণ মাসির কোলের লাগি । জল শুধু জল দেখে দেখে চিত্ত তার হয়েছে বিকল । মন্থণ চিকণ কৃষ্ণ কুটিল নিষ্ঠুর, লোলুপ লেলিহজিহব সৰ্পসম কুর খল জল ছল-ভরা, তুলি লক্ষ ফণী । ফুলিছে গজিছে নিত্য করিছে কামনা মৃত্তিকার শিশুদের, লালায়িত মুখ । ృఅలీ