পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (সপ্তম খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১৬৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কল্পনা শুনিয়া গোবু ভাবিয়া হল খুন, দারুণ ত্রাসে ঘর্ম বহে গাত্রে । পণ্ডিতের হইল মুখ চুন, পাত্রদের নিদ্রা নাহি রাত্রে । রান্নাঘরে নাহিক চড়ে হাড়ি, কান্নাকাটি পড়িল বাড়িমধ্যে, অশ্রািজলে ভাসায়ে পাকা দাড়ি কহিলা গোবু হবুর পাদপদ্মে, যদি না ধুলা লাগিবে তব পায়ে পায়ের ধুলা পাইব কী উপায়ে ? শুনিয়া রাজা ভাবিল জুলি তুলি, কহিল শেষে, ‘কথাটা বটে সত্য— কিন্তু আগে বিদায় করে ধূলি, ভাবিয়ে পরে পদধূলির তত্ত্ব । ধুলা-অভাবে না পেলে পদধুলা তোমরা সবে মাহিনা খাও মিথ্যে, কেন বা তবে পুষিতু এতগুলা উপাধি-ধরা বৈজ্ঞানিক ভূত্যে ? আগের কাজ আগে তো তুমি সারে, পরের কথা ভাবিয়ে পরে অারো ? র্তাধার দেখে রাজার কথা শুনি, যতনভরে আনিল তবে মন্ত্রী যেখানে যত আছিল জ্ঞানীগুণী দেশে বিদেশে যতেক ছিল যন্ত্রী । বসিল সবে চশমা চোখে অঁাটি, ফুরায়ে গেল উনিশ পিপে নস্ত। অনেক ভেবে কহিল, ‘গেলে মাটি ধরায় তবে কোথায় হবে শস্ত ? Ֆ(tՓ