পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (সপ্তম খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/২২৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


২১২ রবীন্দ্র-রচনাবলী শাস্ত্র যদি নেহাত পড়তে হবে গীত-গোবিন্দ খোলা হোক-না তবে । শপথ মম, বোলে না এই ভবে জীবনখানা শুধুই স্বপ্নবং । একটা দিনের সন্ধি করিয়াছি, বন্ধ আছে যমরাজের সমর । আজকে শুধু এক বেলারই তরে আমরা দোহে অমর দোহে অমর | স্বয়ং যদি আসেন আজি দ্বারে মানব নাকে রাজার দারোগারে— কেল্লা হতে ফৌজ সারে সারে দাড়ায় যদি, ওঁচায় ছোর-ছুরি, বলব, ‘রে ভাই, বেজার কোরো নাকো, গোল হতেছে, একটু থেমে থাকে, কৃপাণ-খোলা শিশুর খেলা রাখে। খ্যাপার মতো কামান-ছোড়াছুড়ি । একটুখানি সরে গিয়ে করে। সঙের মতো সঙিন ঝম-ঝমর । আজকে শুধু এক বেলারই তরে আমরা দোহে অমর দোহে অমর । বন্ধুজনে যদি পুণ্যফলে করেন দয়া, আসেন দলে দলে, গলায় বস্ত্র কব নয়নজলে, ‘ভাগ্য নামে অতিবর্ষা-সম ! এক দিনেতে অধিক মেশামোশ শ্রান্তি বড়োই আনে শেষাশেষি, জান তো ভাই, দুটি প্রাণীর বেশি এ কুলায়ে কুলায় নাকো মম |