পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (সপ্তম খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/২৪১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ক্ষণিক অচেনা কেউ যে কারে চিনি নাকে সেটা মস্ত বাচন । তা না হলে নাচিয়ে দিত বিষম তুর্কি-নাচন। বুকের মধ্যে মনটা থাকে, মনের মধ্যে চিন্তা— সেইখানেতেই নিজের ডিমে সদাই তিনি দিন তা । বাইরে যা পাই সম্জে নেব তারি আইন-কাতুন, অস্তরেতে যা আছে তা অন্তযামীই জাতুন । চাই নে রে, মন চাই নে । মুখের মধ্যে যেটুকু পাই যে হাসি আর যে কথাটাই যে কলা আর যে ছলনাই তাই নে রে মন, তাই নে । বাইরে থাকুক মধুর মৃতি, সুধামুখের হাস্য, তরল চোখে সরল দৃষ্টি— করব না তার ভাষ্য | বাহু যদি তেমন করে জড়ায় বাহুবন্ধ আমি দুটি চক্ষু মুদে রইব হয়ে অন্ধ— २२१