পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (সপ্তম খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/২৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


कथाँ নৃপশিষ্য নতশিরে । বসি রহে নদীতীরে, চিন্তারাশি ঘনায় ললাটে । থামিল রাখালবেণু গোঠে ফিরে গেল ধেনু, পরপারে সূর্য গেল পাটে । পুরবীতে ধরি তান q একমনে রচি গান গাহিতে লাগিলা রামদাস, “আমারে রাজার সাজে বসায়ে সংসারমাঝে কে তুমি আড়ালে কর বাস ! হে রাজা, রেখেছি আনি, তোমারি পাদুকাখানি আমি থাকি পাদপীঠতলে— সন্ধ্যা হয়ে এল ওই, আর কত বসে রই ! তব রাজ্যে তুমি এসে চলে। ৬ কার্তিক ১৩০৪ ব্রাহ্মণ ছানোগ্যোপনিষদ । ৪ প্রপাঠক । ৪ অধায় অন্ধকার বনচ্ছায়ে সরস্বতীতীরে অস্ত গেছে সন্ধ্যাসূর্য ; আসিয়াছে ফিরে নিস্তব্ধ আশ্রম-মাঝে ঋষিপুত্রগণ মস্তকে সমিধৃভার করি আহরণ বনান্তর হতে ; ফিরায়ে এনেছে ডাকি তপোবনগোষ্ঠগৃহে স্নিগ্ধশাস্ত-আঁখি শ্রাস্ত হোমধেনুগণে ; করি সমাপন সন্ধ্যাহ্মান, সবে মিলি লয়েছে আসন গুরু গৌতমেরে ঘিরি কুটিরপ্রাঙ্গণে হোমাগ্নি-আলোকে। শূন্যে অনন্ত গগনে ধ্যানমগ্ন মহাশাস্তি ; নক্ষত্রমণ্ডলী সারি সারি বসিয়াছে স্তন্ধ কুতূহলী ১৭