পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (সপ্তম খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৩৪২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রবীন্দ্র-রচনাবলী আজি আসিয়াছ ভুবন ভরিয়া গগনে ছড়ায়ে এলোচুল, চরণে জড়ায়ে বনফুল । ঢেকেছে আমারে তোমার ছায়ায় সঘন সজল বিশাল মায়ায়, আকুল করেছ শু্যাম সমারোহে হৃদয়সাগর-উপকূল চরণে জড়ায়ে বনফুল । ফাল্গুনে আমি ফুলবনে বসে গেথেছিছু যত ফুলহার সে নহে তোমার উপহার । যেথা চলিয়াছ সেথা পিছে পিছে স্তবগান তব আপনি ধ্বনিছে, বাজাতে শেখে নি সে গানের স্বর এ ছোটাে বীণার ক্ষীণ তার— এ নহে তোমার উপহার । কে জানিত সেই ক্ষণিক মুরতি দূরে করি দিবে বরষন, মিলাবে চপল দরশন ? কে জানিত মোরে এত দিবে লাজ ? তোমার যোগ্য করি নাই সাজ, বাসর-ঘরের দুয়ারে করালে পূজার অর্ঘ্য-বিরচন— একি রূপে দিলে দরশন ! ক্ষমা করে। তবে ক্ষমা করো মোর আয়োজনহীন পরমাদ, ক্ষমা করে যত অপরাধ ।