পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (সপ্তম খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৪০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


S) to রবীন্দ্র-রচনাবলী জনহীন পুরী, পুরবাসী সবে গেছে মধুবনে ফুল-উৎসবে— শূন্য নগরী নিরথি নীরবে হাসিছে পূর্ণচন্দ্র । নির্জন পথে জ্যোৎস্না-আলোতে সন্ন্যাসী এক যাত্রী । মাথার উপরে তরুবীথিকার কোকিল কুহরি উঠে বারবার, এতদিন পরে এসেছে কি তার আজি অভিসাররাত্রি ? নগর ছাড়ায়ে গেলেন দণ্ডী বাহির প্রাচীরপ্রান্তে । দাড়ালেন আসি পরিখার পারে, অাম্রবনের ছায়ার আঁধারে কে ওই রমণী প’ড়ে এক ধারে র্তাহার চরণোপান্তে ! নিদারুণ রোগে মারীগুটিকায় ভরে গেছে তার অঙ্গ । রোগমসীঢালা কালী তনু তার লয়ে প্রজাগণে পুরপরিখার বাহিরে ফেলেছে, করি পরিহার বিষাক্ত তার সঙ্গ । সন্ন্যাসী বসি আড়ষ্ট শির তুলি নিল নিজ অঙ্কে । ঢালি দিল জল শুষ্ক অধরে, মন্ত্র পড়িয়া দিল শির’পরে, লেপি দিল দেহ আপনার করে শীতচন্দনপঙ্কে ।