পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (সপ্তম খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৪১৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


* | শারদোৎসব } } లి:

  • * , " . ادب d | l l o }

কোন শাপে কোন গ্রহের দোষে মুখের ভাঙায় থাকব বসে ?-- পালের রশি ধরব কবি, চলব গেয়ে গান | সন্ন্যাসী । ঠাকুর্দা ! ' ' ঠাকুরদাদা । ( জিভ কাটিয়া ) প্রভু, তুমিও আমাকে পরিহাস করবে ? : সন্ন্যাসী। তুমি যে জগতে ঠাকুর্দ হয়েই জন্মগ্রহণ করেছ, ঈশ্বর সকলের সঙ্গেই তোমার হাসির সম্বন্ধ পাতিয়ে দিয়ে বসেছেন, সে তো তুমি লুকিয়ে রাখতে পারবে না । ছোটে ছোটো ছেলেগুলির কাছেও ধরা পড়েছ, আর আমাকেই ফাকি দেবে ? * ঠাকুরদাদা। ছেলে-ভোলানোই যে আমার কাজ– তা ঠাকুর, তুমিও যদি ছেলের দলেই ভিড়ে যাও তা হলে কথা নেই। তা, কী আজ্ঞা কর . . . . সন্ন্যাসী। আমি বলছিলেম ওই-যে গানটা গাইলে, ওটা আজ ঠিক হল না । দুঃখ নিয়ে ওই অত্যন্ত টানাটানির কথাটা, ওটা আমার কানে ঠিক লাগছে না। দুঃখ তে৷ জগৎ ছেয়েই আছে, কিন্তু চার দিকে চেয়ে দেখে-না— টানাটানির তো কোনো চেহার দেখা যায় না। তাই এই শরং-প্রভাতের মান রাখবার জন্তে আমাকে আর-একটা গান গাইতে হল। * ঠাকুরদাদা। তোমাদের সঙ্গ এইজন্যই এত দামি ; ভুল করলেও ভুলকে সার্থক করে তোল । , o . al সন্ন্যাসী — 1 গান जलिङ । आँफुप्%को তোমার সোনার থালায় সাজাব আজি দুখের অশ্রীধার । , জননী গো, গাথৰ তোমার গলার মুক্তাহার। চন্দ্র সূর্য পায়ের কাছে o মালা হয়ে জড়িয়ে আছে, , তোমার বুকে শোভা পাবে আমার দুখের অলংকার ।