পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (সপ্তম খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৪৩৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


8° রবীন্দ্র-রচনাবলী সন্ন্যাসী। আমার হাতে দাও বাবা! তুমি ভাবছ এই তোমার বহুমূল্য তিন কার্বাপণ আমি লঙ্কেশ্বরের হাতে ঋণশোধের জন্য দেব? এ আমি নিজে নিলেম। আমি এখানে শারদার উংসব করেছি, এ আমার তারই দক্ষিণা। কী বল বাবা ? উপনন্দ । ঠাকুর, তুমি নেবে! w | সন্ন্যাসী। নেব বৈকি। তুমি ভাবছ সন্ন্যাসী হয়েছি বলেই আমার কিছুতে লোভ নেই ? এ-সব জিনিসে আমার ভারী লোভ। লক্ষেশ্বর। সর্বনাশ ! তবেই হয়েছে! ডাইনের হাতে পুত্র সমর্পণ করে রসে আছি দেখছি । সন্ন্যাসী। ওগো শ্রেষ্ঠী ! শ্রেষ্ঠী। আদেশ করুন। সন্ন্যাসী । এই লোকটিকে হাজার কার্ষাপণ গুনে দাও। শ্রেষ্ঠ । যে আদেশ । উপনন্দ। তবে ইনিই কি আমাকে কিনে নিলেন ? সন্ন্যাসী। উনি তোমাকে কিনে নেন ওঁর এমন সাধ্য কী ! তুমি আমার। উপনন্দ । ( পা জড়াইয়া ধরিয়া) আমি কোন পুণ্য করেছিলেম যে আমার এমন ভাগ্য হল ! সন্ন্যাসী । ওগো স্বভূতি । মন্ত্রী। আজ্ঞা ! সন্ন্যাসী। আমার পুত্র নেই বলে তোমরা সর্বদা আক্ষেপ করতে। এবারে সন্ন্যাসধর্মের জোরে এই পুত্রটি লাভ করেছি। o লক্ষেশ্বর। হায় হয়, আমার বয়স বেশি হয়ে গেছে বলে কী সুযোগটাই পেরিয়ে গেল ! - * মন্ত্রী। বড়ো আননা ! তা, ইনি কোন রাজগৃহে— 强 সন্ন্যাসী । ইনি যে গৃহে জন্মেছেন সে গৃহে জগতের অনেক বড়ো বড়ে বীর জন্মগ্রহণ করেছেন— পুরাণ-ইতিহাস খুজে সে আমি তোমাকে পরে দেখিয়ে দেব। লক্ষেশ্বর ! লক্ষেশ্বর। কী আদেশ ? a i r সন্ন্যাসী । বিজয়াদিত্যের হাত থেকে তোমার মণিমাণিক্য আমি রক্ষা করেছি ; এই তোমাকে ফিরে দিলেম। * I i লক্ষের। মহারাজ, যদি গোপনে ফিরিয়ে দিতেন তা হলেই যথার্থ রক্ষা করতেন, এখন রক্ষা করে কে ! *.