পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (সপ্তম খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৫৬৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


গ্রন্থপরিচয় । ¢ፀጎ ওটা হচ্ছে ছুটির নাটক। ওর সময়ও ছুটির, ওর বিষয়ও ছুটির । রাজা ছুটি নিয়েছে রাজত্ব থেকে, ছেলেরা ছুটি নিয়েছে পাঠশালা থেকে। তাদের আর-কোনো মহৎ উদ্দেপ্ত নেই কেবল একমাত্র হচ্ছে— ‘বিনা কাজে বাজিয়ে বাশি কাটবে সকল বেলা' । ওর মধ্যে একটা উপনন্দ কাজ করছে, কিন্তু সেও তার ঋণ থেকে ছুটি পাবার কাজ । —ভাতুসিংহের পত্রাবলী । পত্রসংখ্যা ৫২ ১৩২৯ ভাত্রে কলিকাতায় শারদোৎসব-অভিনয়ের সময় উহার একটি ভূমিকা’ কবি রচনা করেন। অভিনয়পত্রী হইতে নিম্নে তাহা যথাযথ মুদ্রিত হইল— শারদোৎসবের ভূমিকা রাজা । আমাদের সব প্রস্তুত তো ? মন্ত্রী । ই মহারাজ, এক রকম প্রস্তুত, কিন্তু— রাজা। কিন্তু ! কিন্তু আবার কিসের । আমাদের শারদ-উৎসবের ভিতরেও কিন্তু এসে পড়ে ! এ তে রাষ্ট্রনীতি নয় । মন্ত্রী । উৎসবের আয়োজনের মধ্যে একটি কবি আছেন যে, কাজেই কিন্তুর অভাব হয় না। عميد রাজা । আমাদের কবিশেখরের কথা বলছ ? তা, তার উপরে তো ভার ছিল উৎসব উপলক্ষে একটা যাত্রার পালা তৈরি করবার জন্তে । মন্ত্রী। আপনি তো তাকে জানেন ; সুবিধা অসুবিধা, স্থান কাল পাত্র, এ-সবের দিকে র্তার একেবারেই দৃষ্টি নেই। তিনি আপন খেয়ালমতোই চলেন। রাজা । তা, হয়েছে কী ? লোকটা পালিয়েছে নাকি ? মন্ত্রী। এক রকম পালানোই বৈকি। সভাপণ্ডিত-মশায় ঠিক করে দিয়েছিলেন, এবারকার উৎসবের জন্যে শুম্ভনিশুম্ভ-বধের পালা তৈরি করে দিতে হবে। এ কথা হয়েছিল সেই মহাদ্বাদশীর দিনে। কাল শুনি কবি সে পালা তৈরিই করে নি। রাজা। কী সর্বনাশ! এ মানুষকে নিয়ে দেখছি আর চলল না। সখা, তুমি কেনারাম পাচালিওয়ালার উপর ভার দিলে না কেন, তা হলে তো এ বিভ্ৰাট ঘটত না । পুরবাসীরা সবাই এসে জুটেছেন, এখন উপায় ? মন্ত্রী । কবি বলছেন, তিনি তার মনের মতো ছোটো একটা পালা লিখেছেন ।