পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (সপ্তম খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৭৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রবীন্দ্র-রচনাবলী আহবান শুনে কে কারে থামায়, ভক্তহৃদয় মিলিছে আমায়, পঞ্জাব জুড়ি উঠিছে জাগিয়া উন্মাদ কোলাহল । ‘কোথা যাবি ভীরু, গহনে গোপনে পশিছে কণ্ঠ মোর । প্রভাতে শুনিয়া ‘আয় অায় অণয়’ কাজের লোকের কাজ ভুলে যায়, নিশীথে শুনিয়া ‘আয় তোরা অায়’ ভেঙে যায় ঘুমঘোর । “যত অাগে চলি বেড়ে যায় লোক, ভরে যায় ঘাট বাট । ভুলে যায় সবে জাতি-অভিমান, , অবহেলে দেয় আপনার প্রাণ, এক হয়ে যায় মান অপমান ব্রাহ্মণ আর জাঠ । থাক ভাই, থাক, কেন এ স্বপন— এখনো সময় নয় | এখনো একাকী দীর্ঘ রজনী জাগিতে হইবে পল গনি গনি অনিমেষ চোখে পূর্ব গগনে - দেখিতে অরুণোদয় । ‘এখনো বিহার কল্পজগতে, অরণ্য রাজধানী— এখনো কেবল নীরব ভাবনা, কর্মবিহীন বিজন সাধনা, দিবানিশি শুধু বসে বসে শোনা আপন মর্মবাণী ।