পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (সপ্তম খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৭৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


צ\|ר क६1 যৌবনের স্বর্ণপটে, যে আশা একদ ভারত গ্রাসিয়াছিল, সে আজি শতধা, সে আজি সংকীর্ণ শীর্ণ সংশয়সংকুল, সে আজি সংকটমগ্ন । তবে একি ভুল ! তবে কি জীবন ব্যর্থ! দারুণ দ্বিধায় শ্রাস্তদেহে ক্ষুন্ধচিত্তে আঁধার সন্ধ্যায় । গোবিন্দ ভাবিতেছিল ; হেনকালে এসে পাঠান কহিল তারে, যাৰ চলি দেশে, ঘোড়া-যে কিনেছ তুমি দাও তার দাম ।’ কহিল গোবিন্দ গুরু, শেখজী, সেলাম, মূল্য কালি পাবে, আজি ফিরে যাও ভাই । পাঠান কহিল রোষে, মূল্য আজই চাই । এত বলি জোর করি ধরি তার হাত— চোর বলি দিল গালি । শুনি অকস্মাৎ গোবিন্দ বিজুলি-বেগে খুলি নিল অসি, পলকে সে পাঠানের মুণ্ড গেল খসি ; রক্তে ভেসে গেল ভূমি । হেরি নিজ কাজ মাথা নাড়ি কহে গুরু, ‘বুঝিলাম আজ আমার সময় গেছে । পাপ তরবার লঙ্ঘন করিল আজি লক্ষ্য আপনার নিরর্থক রক্তপাতে। এ বাহুর পরে বিশ্বাস ঘুচিয়া গেল চিরকালতরে । ধুয়ে মুছে যেতে হবে এ পাপ, এ লাজ— অীজ হতে জীবনের এই শেষ কাজ ? পুত্র ছিল পাঠানের বয়স নবীন, গোবিন্দ লইল তারে ডাকি । রাত্রিদিন পালিতে লাগিল তারে সস্তানের মতো চোখে চোখে । শাস্ত্র অণর শস্ত্রবিদ্যা যত టన