পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (সপ্তম খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৮৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রবীন্দ্র-রচনাবলী ‘লড়াই করি আশ মিটেছে মিঞা ? বসন্ত যায় চোখের উপর দিয়া, এসে তোমার পাঠান সৈন্য নিয়া— হোরি খেলব আমরা রাজপুতানী ? যুদ্ধে হারি কোট শহর ছাড়ি কেতুন হতে পত্র দিল রানী । পত্র পড়ি কেসর উঠে হাসি মনের সুখে গোফে দিল চাড়া । রঙিন দেখে পাগড়ি পরে মাথে, স্বৰ্মা আঁকি দিল আঁখির পাতে, গন্ধভরা রুমাল নিল হাতে— সহস্রবার দাড়ি দিল ঝগড়া । পাঠান-সাথে হোরি খেলবে রানী, ᎹᏗ কেসর হাসি গোফে দিল চাড় । ফাগুন মাসে দখিন হতে হাওয়া বকুলবনে মাতাল হয়ে এল । বোল ধরেছে আমের বনে বনে, ভ্রমরগুলো কে কণর কথা শোনে, গুনগুনিয়ে আপন-মনে-মনে । ঘুরে ঘুরে বেড়ায় এলোমেলে । কেতুনপুরে দলে দলে আজি পাঠান-সেন হোরি খেলতে এল । কেতুনপুরে রাজার উপবনে তখন সবে ঝিকিমিকি বেলা । পাঠানের দাড়ায় বনে আসি, মুলতানেতে তান ধরেছে বঁাশি— এল তখন এক-শো রানীর দাসী রাজপুতানী করতে হোরিখেলা ।