পাতা:রাজমোহনের স্ত্রী.djvu/৩৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রাজমোহনের স্ত্রী で > তখন একটি সামান্য মেটে দেওয়াল ছাড়া অন্ত ব্যবধান ছিল না বলিয়। একেবারে স্পষ্ট সব কথা শুনিতে না পাইলে ও বক্তাদের উদেশ্ব বুঝিবার মত সব কিছুই শুনিতে পাইতেছিল । পরস্পর কিঞ্চিং বাক্যবিনিময় হওয়ার পর একজন বলিল, অত জোরে কথা বলছ কেন ? তোমার বাড়ির লোকে শুনতে পাবে সে । মাতঙ্গিনী গলার আওয়াজে বুঝিল, রাজমোহন বলিতেছে—-এত রাত্রে কেউ জেগে নেই । —আচ্ছা দেখ, দেয়ালের কাছ থেকে একটু স’রে গিয়ে কথা বললে হয় না ? যদি কেউ জেগে থাকে ও আমাদের কথ; সে শুনতে পাবে না – অপর ব্যক্তি এই মন্তব্য করিল। রাজমোহন বলিল, ন হে, ন, তোমার কথা যদি সত্যিও হয়, কেউ দি জেগেও থাকে ; তা হ’লে আমরা এই জায়গাটাতেই সব চাইতে নরাপদ আছি—দেয়ালের আর চালের আড়ালে বাড়ির ভেতর থেকে কেউ আমাদের দেখতে পাবে না, জানলার ফাটল দিয়েও এখানটা দেখা যায় না । এত রাত্রে যদি কেউ বাইরে আসে, তা হ’লেও আমাদের দেখতে পাওয়ার সম্ভাবন কম । অন্যজন উত্তর দিল, ঠিক । আচ্ছা, এ ঘরটায় কে থাকে ? রাজমোহন বলিল, সে খোজে তোমার কাজ কি ? কিন্তু পরক্ষণেই সামলাইয়া লইয়া বলিল, তোমাকে বলতে বাধা নেই, এটা আমার শোবার নর, আমার স্ত্রী ছাড়া এ ঘরে কেউ নেই । অন্যজন প্রশ্ন করিল, তোমার স্ত্রী তো জেগে থাকতে ৪ পারে । —ঘুমুচ্ছে নিশ্চয়ই, তবু দেখে আসি । তুমি এখানেই দাড়াও । মাতঙ্গিনী শুনিল, পায়ের শব্দ ধীরে ধীরে দূরে যাইতেছে। মুদু নঃশব্দ পদসঞ্চারে সে শয্যার সমীপবৰ্ত্তী হইয় অত্যন্ত সতর্কতার সহিত তাহার উপর উঠিল—আঁচলের খসগস শব্দ ও শোনা গেল না ; তারপর