পাতা:রাজমোহনের স্ত্রী.djvu/৬৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


নবম পরিচ্ছেদ মিলনে বিরহের সূচনা মাধব তাহার পত্নী ও তালিকার সহিত মিলিত হইয়াই মাতঙ্গিনীকে লক্ষ্য করিয়া বলিল, তুমি আমার জন্যে যা করেছ, তা কি আমি ভুলতে পারি ? হেমাঙ্গিনীর বুক হইতে আশঙ্কার গুরুভার তখন নামিয়া গিয়াছে, সে দিদিকে মাধবের নিকট এক রাখিয়া লঘুপদক্ষেপে ঘরের বাহিরে চলিয় গেল। মাধব আবার বলিল, তুমি যা করেছ, তা ভোলবার নয় । কথা দিয়া সে যাহা প্রকাশ করিতে পারিতেছিল না, তাহার দৃষ্টিতে সেই কৃতজ্ঞতা ছিল । —বেশ, ভুলতে যদি না পার, হেমের জন্যে মনে ক’রে রেথ । ঈশ্বর ন করুন, যদি কখনও তার ওপর তোমার রাগ হয়, তার দিদির আজকের এই যন্ত্রণা-ভোগের কথা মনে ক’রে তাকে ক্ষমা ক’রে । আমার কথা যদি বল, এ আমাকে করতেই হত । যাক, আমি তা হ’লে আসি । মাধব বলিল, সে কি দিদি, কতদিন হেম তোমাকে দেখে নি, আরও ঘণ্টা কয়েক সে তোমার সঙ্গে থাকতে পেলে খুসি হবে। যদি দু-একদিন না থাকতে চাও, সকাল হ’লেই আমার পান্ধীতে বাড়ি ঘেও এখন । এই রাত্রেই হেঁটে বাড়ি যাবার দরকার কি ? মাতঙ্গিনী বিষন্ন ভাবে বলিল, অদৃষ্টের লিখন । সে সুখ আমার কপালে নেই ভাই । আমাকে যেতেই হবে । মাধব আবার প্রশ্ন করিল, ব্যাপার কি দিদি ? আমার জানতে কিছু বাধা আছে ?