পাতা:রাধারাণী-বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/৩৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ՀԵ রাধারাণী চিরসঞ্চিত প্রণয়সম্ভাষণপিপাসা পরিতৃপ্ত করিল। নিদাঘসস্তপ্ত পৰ্ব্বত যেমন বর্ষার বারিধারা পাইয়া শীতল হয়, দেবেন্দ্রনারায়ণও তেমনি শীতল হইলেন। তিনি রাধারাণীকে জিজ্ঞাসা করিলেন, “তোমার ত কেহ নাই। কিন্তু এ বাড়ী বড় জনাকীর্ণ দেখিতেছি ।” রাধারাণী বলিল, “ছঃখের দিনে আমার কেহ ছিল না। এখন আমার অনেক আত্মীয় কুটুম্ব জুটিয়াছে। আমি এ অল্প বয়সে এক থাকিতে পারি না, এজন্ত যত্ন করিয়া তাছাদিগকে স্থান দিয়া রাখিয়াছি।” দে। র্তাহাদের মধ্যে এমন সম্বন্ধবিশিষ্ট কেহ আছে যে, তোমাকে এই দীন দরিদ্রকে দান করিতে পারে ? রা । তাও আছে । দে। তবে তিনি কেন সেই শুভলগ্নযুক্ত স্থতহিবুক যোগটা খুজুন না ? র। বোধ করি, এতক্ষণ সে কাজটা হইয়া গেল। তোমার সঙ্গে রাধারাণীর এরূপ সাক্ষাৎ অন্য কোন কারণে হইতে পারে না, এ পুরীতে সকলেই জানে। সংবাদ লইব কি ? 7 দে। বিলম্বে কাজ কি ? রাধারাণী ডাকিল, “চিত্রে ” চিত্র আসিল। রাধারাণী জিজ্ঞাসা করিল, “দিন টিন কিছু হইল কি ?” চিত্র বলিল, “হা, দেওয়ানজি মহাশয় পুরোহিত মহাশয়কে ডাকাইয়াছিলেন। পুরোহিত পর দিন বিবাহের উত্তম দিন বলিয়া গিয়াছেন। দেওয়ানজি মহাশয় সমস্ত উদ্যোগ করিতেছেন।” তখন বসন্ত আসিল, কামাখ্যা বাবুর পুত্রের এবং পরিবারবর্গ সকলেই আসিল, আর যত বসন্তের কোকিল, সময়ের বন্ধু, যে যেখানে ছিল, সকলেই আসিল । দেবেন্দ্রনারায়ণের বন্ধু ও অনুচর-বর্গ সকলেই আসিল । বসন্তু আসিলে রাধারাণী বলিল, “তোমার কি আক্কেল ভাই বসন্ত ?” বসন্ত বলিল, “কি আক্কেল ভাই রাধারাণী ?” রা। যাকে তাকে তুমি পত্ৰ দিয়া পাঠাইয়া দাও কেন ? বসন্ত । কেন, লোকটা কি করেছে বল দেখি ? রাধারাণী তখন সকল বলিল। বসন্ত বলিল, “রাগের কথা ত বটে। স্বদ শুদ্ধ দেন। পাওনা বুঝিয় নেয়, এমন মহাজনকে যে বাড়ী চিনাইয়া দেয়, তার উপর রাগের কথাট। বটে।”