পাতা:রাসেলাস.djvu/২১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রাসেলাস । o t চষ্ণুপুট দ্বারা ফল, মুল, শস্য প্রকৃতি আস্থার সামগ্ৰী তাহরণ করিয়া ভক্ষণ করে, ক্ষুধ মিকৃত্তি হইলে বমের অত্যন্তরে উঠিয়া যায়, তথাত তরুশাখায় উপবিষ্ট ভূইয়া, জস্ক্রিয় অবধি যে এক প্রকার কলরব শিখিয়া:ছ তাছাই পুনঃপুনঃউচ্চারণ করিয়া সুখে কাল্প যাপন করে। স্বস্থি শত শত বীণাবাদক ও বেণুবাদক আনিতে পারি, পর শক্ত গায়ক সংগ্ৰহ করিতে পারি, কিন্তু কলা যে গান ও স্বর শুনিয়াছি জাহা মার আজি শুনিতে ত{ল সংগে না, আবার পরদিনে উহ শুনিতে ক্লেশকর ৰোধ হয় । এখানে কৌতুক নিবারণের সমুদায় সামগ্ৰী আছে, ইঞ্জিয় পরিতৃপ্ত কৱিৰীয় সকল উপায় আছে, তথাপি আমি পরিতৃপ্ত ৰ সস্তুষ্ট হই না। বোধ হয়, মানধ জাতির অgড়াবিত কোন ইন্দ্রিয় থাকিবেক সেই ইন্দ্রিয় পরিতৃপ্ত ‘ কৰিবাক্ষ সামগ্রী এখানে নাই, অথব: ੇਖ ব্যক্তিরিক্ত এমন্ত কোন সুখ থাকিবেক সেই সুখ সম্ভোগ করিতে ন পারিলে মন্থষ্য প্রকৃত সুখী হইতে পারেন না।” ) মনস্তর রাসেলাস উৰ্দ্ধে দৃষ্টিপাত করিয়া দেখিলেন গগনমণ্ডলে চন্দ্রোদয় হইতেছে, তখন প্রাসীদের দিকে, চলিলেন। মাঠের মধ্য দিয়া যাইবার সময় চতুৰ্দ্দিকে পশুদিগকে দেখিয়া সম্বোধন করিয়া কহিলেন “ পশু । জাভি ! তোমরাই যথার্থ সুখী। আমি দুঃখভারে অক্রান্ত হইয় তোমাদিগের নিকট দিয়া ধাইতেছি,সামাৰুে