পাতা:রাসেলাস.djvu/২৫০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রাসেলাস । *N○次 উহ। চির কাল অবিনশ্বর হইয়া থাকে । কোন বস্তুর বিনাশের পুৰ্ব্বে, অগ্ৰে ভাস্কার অংশের বিশ্লেষ হয়, আনশুর সমবায়িকারণের নাশ হয় ; কিন্তু উহার অংশ নাই, সমবায়িকারণেরও বিনাশ দেখিতে পাই না ; সুতবtং উহা বিনষ্ট হইল বলিয়; কিকপে সিদ্ধান্ত কবিব ১” রাসেলাস কহিলেন “ বস্তুর দৈর্ঘ্য বিস্তার নাই, ইহু! আমি ভাবিয়া স্থির করিতে পারি মা। যাহার দৈর্ঘ্য বি স্থার আছে তাহীরই অংশ অ!ছে ; এবং তুমিই বলিলে, স্থার অংশ কাছে ত;হার বিনাশ গু হইয় থাকে • ইমলাক উত্তর করিলেন । রাজকুমার ! তোমার মানসিক জ্ঞামের বিষয় বিবেচনা করিয়া দেখ, তাহ হইলেই সকল সন্দেহ দূর হইবেক । জ্ঞানের কি দৈর্ঘ্য বিস্তার আuছ ? যেরূপ জ্ঞানের দৈর্ঘ্য বিস্তার নাই, সেই রূপ, মাহ-র জ্ঞান হয়, তাহারও দৈর্ঘ্য বিস্তার নাই। “ . নিকায় কহিলেন “সেই সৰ্ব্বশক্তিমান যাহার কৃষ্টি করিয়াছেন, ভাহীর বিনাশও করিতে পারেন ৷” ইমলাক উত্তর করিলেন “ স্থা, তিনি সকলই করতে পারেন । যাঁহার বিনাশের কোন কারণ দেখা যাইতেছে ন, তাহাকেও অবিনশ্বর করিয় রীথিতে তাহারই ক্ষমতা আছে। বাহা কোন কারণ দ্বারা উহা বিনষ্ট ও বিকুণ্ড হইবেক না, দর্শনশাস্ত্র, এই পর্যন্ত বলিতে পারেন, हेशंद्र अधिक आद्र बलिरज्र नंोटङ्गन म ।” .