পাতা:রাসেলাস.djvu/৪০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


くbr রাসেলাস | ' সেই ঋণ তইতে পরিত্রাণ পাম । যে যাহ কানিতে বা উম্ভাবন করিতে পারে ভাহা লোকেৰ হিতসাধনের মিমিত্ত প্রয়োগ করাই উচিত।” “ যদি সকল মনুষ্য সুশীল ও ধাৰ্ম্মিক তইত, তহ! হইলে আমি তা হল:দিতচিত্ত্বে সকলকেষ্ট উড়িবার কেশল শিখাইভীম । যখন অসচ্চরিত লোকের গগনমণ্ডল হইতে ভূতলে অবতীর্ণ হইয়। ভদ্রলোকের সর্বনাশ অবস্থ করবে, তখন পৃথিবীর সুখ স্বচ্ছন্দ কোথায় থাকবে ক ! তখন প্রাচীর, পরিখ-দুর্গ,অরণা, বক্ত, সাগর, কিছুতেই কিছু রক্ষ হইবেক না । তখন উত্তর দিকের অসভ্য লোকেরাও গগনমগ দিয়া আসিয়া সমৃদ্ধিশালী রাজ্যের রাজধানীতে অবতীর্ণ হইবে, লুঠ করিবে ও নানা বিশৃঙ্খলত ঘটাইবে । তখন রাজকুমারদিগের বাসস্থান সুখময় এই গিরিগর্তও নিৰাপদে থাকিবে না ? শিল্পকর এই কথা কহিলে রাজকুমার তাহার শিল্পনৈপুণ্যের বিষয় গে'পনে রাখিতে স্বীকার করিলেন । শিল্পকর সঙ্কল্পত বিষয় সম্পাদন করিলেও করিতে পারেন মনে মধ্যে এইরূপ আশার উদয় হওয়াতে, রাসেলাস মধ্যে মধ্যে শিল্পকরের নিকটে যাইতেন, কত দূর হইল সর্বদা প্তচুসন্ধান লইতেন এবং কি রূপ করিলে উত্তম হইবেক, তাহারও উপদেশ দিতেন। পক্ষাদিগকেও অতিক্রম করিয়া উঠিব বলিয়া শিল্পকরের মনে দিন দিন বিশ্বাস বৃদ্ধি