পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (দশম সম্ভার).djvu/৪২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ

 জনাৰ্দ্দন । আমার পরম সৌভাগ্য যে আপনি এসেচেন। আজ আমার দৌহিত্রের কল্যাণে মায়ের পূজা দেওয়া হচ্চে।

 জীবানন্দ । বটে ! তাই বুঝি বাইরে এত জন-সমাগম ?

[ জনাৰ্দ্দন সবিনয়ে মুখ নত করিলেন । ]

 শিরোমণি । হুজুরের দেহটি ভাল আছে ?

 জীবানন্দ । দেহ ? ( হাসিয়া ) হাঁ, ভালই আছে । তাই ত আজ হঠাৎ বেরিয়ে পড়লাম। দেখি, বহুলোকে ভীড় করে এইদিকে আসচে। সঙ্গ নিলাম। অদৃষ্ট প্রসন্ন ছিল, দেবতা ব্রাহ্মণ এবং সাধুসঙ্গ তিনটেই বরাতে জুটে গেল । কিন্তু রায়মশায়কেই জানি, আপনাকে ত বেশ চিনতে পালাম না ঠাকুর ?

 জনাৰ্দ্দন। ইনি সৰ্ব্বেশ্বর শিরোমণি । প্রাচীন নিষ্ঠাবান ব্রাহ্মণ । গ্রামের মাথা বললেই হয় ।

 জীবানন্দ । বটে ? বেশ, বেশ, বড় আনন্দ লাভ করলাম। তা এইখানেই একটু বসা যাক না কেন ?

[বসিতে উদ্যত হইলে সকলেই ব্যস্ত হইয়া উঠিল । ]

 শিরোমণি । ( চীৎকার করিয়া ) আসন, আসন, বসবার একটা আসন নিয়ে এস কেউ—

 জীবানন্দ । ব্যস্ত হবেন না শিরোমণিমশাই, আমি অতিশয় বিনয়ী লোক । সময়-বিশেষে রাস্তায় শুয়ে পড়তেও অভিমান বোধ করিনে—এ ত ঠাকুরবাড়ি । বেশ বসা যাবে।

[ জীবানন্দ উপবেশন করিলেন । ]

 জনাৰ্দ্দন । একটা গুরুতর কাৰ্য্যোপলক্ষে আমরা সবাই আপনার কাছে যাব স্থির করেছিলাম, শুধু আপনি পীড়িত মনে করেই যেতে পারিনি।

 জীবানন্দ ৷ গুরুতর কার্ধ্যোপলক্ষ্যে ?

 শিরোমণি ৷ হুঁ হুজুর, গুরুতর বই কি । ষোড়শী ভৈরবীকে আমরা কেউ চাইনে ।

 জীবানন্দ । চান না ?

 শিরোমণি । না, হুজুর ।

 জীবানন্দ । একটুখানি জনশ্রুতি আমার কানেতেও পৌঁছেচে । ভৈরবীর বিরুদ্ধে আপনাদের নালিশটা কি শুনি ?

[সকলেই নীরব রহিল ]

 জীবানন্দ । বলতে কি আপনাদের করুণা বোধ হচ্ছে ?

৩২