পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (দশম সম্ভার).djvu/১২৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বৈকুণ্ঠের উইল উচ্চকণ্ঠে কহিল, অতবড় রাবণ রাজা মেয়েমানুষের পরামর্শে সবংশে ধ্বংস হয়ে গেল, তা আমরা কোন ছার! কি যে বাবার কানে কানে ফুসফুস করে উইল করার মস্তর দিলে মা, সবদিকে আমাকে মাটি করে দিলে । ভবানী আশ্চৰ্য্য হইয়া মুখ তুলিবামাত্রই সে হাত-পা নাড়িয়া একটা ক্রুদ্ধ ভঙ্গী করিয়া বলিয়া ফেলিল, তোমাকে ভালোমানুষ বলেই জানতুম মা, তুমিও কম নয়। মেয়েমানুষের জাতটিই এমনি ! বলিয়, তাহাকে ‘মড়ার উপর খাড়ার স্বা’ দিয়া যেমন করিয়া আসিয়াছিল, তেমনি করিয়া চলিয়া গেল। একে দোকানদার, তাহাতে মূখ-গোকুলের কথাই এমনি সকলে জানিত । বিশেষতঃ রাগিলে আর তাহার মুখে বাধা-বাধন থাকিত না ইহা কাহারো অগোচর ছিল না। কিন্তু তাহার আজকালকার কথাবাৰ্ত্তাগুলো বাড়াবাড়িতে দাড়াইতেছে বলিয়া আত্মীয়-পর সকলেরই মনে হইতে লাগিল । অপরাহ্লবেলায় বাড়ুৰ্য্যেমশাই দিবানিদ্রা হইতে উঠিয়া হাত-মুখ ধুইতেছিল—হঠাৎ গোকুল আসিয়া উপস্থিত হইল। সেদিন অপমান করিলেও ত সে বড়লোক। স্বতরাং তাহার আগমনে বৃদ্ধ ব্যস্তসমস্ত হইয়া উঠিলেন। গোকুল তিনখানি নোট ব্রাহ্মণের পায়ের কাছে ধরিয়া দিয়া মানমুখে, বিনীতকণ্ঠে বলিল, মাস্টারমশাই, হারাণের সেদিনকার খরচটা দিতে এলুম। ہم থাক্ থক্‌, সেজন্যে আর ব্যস্ত কেন দাদা, তোমাদের কতই ত খাচ্চি নিচ্চি । —বলিয়া বাড়ুৰ্যোমশাই সে নোট তিনখানি তুলিয়া লইলেন। গোকুলের চোখ দিয়া জল গড়াইয়া পড়িল। উত্তরীয়ের প্রান্তে মুছিয়া ফেলিয়া বলিল, কই আজও তৃ বিনোদ এলো না মাস্টারমশাই ? হারাণকে সঙ্গে করে আমি একবার আজ যাব । , বাড়ুৰ্য্যেমশাই তীব্রভাবে সৰ্ব্বাঙ্গ আন্দোলিত করিয়া বলিয়া উঠিলেন, ছি ছি, এমন কথা মুখেও এনে না ভাই। সে স্থানে যাবে তুমি, আমার হারাণু থাকতে ? না না, তা হবে ন-আমি কালই তাকে পাঠিয়ে বে। . - গোকুল মাথা নাড়িয়া কহিল, না মাস্টারমশাই, আমি না গেলে হবে না। সে বড় অভিমানী—শুধু উইলের কথা শুনেই অভিমানে আসচে না। আমার মুখ থেকে না শুনলে সে আর কারো কথাই বিশ্বাস করবে না। বাপ-মায়ে আমার কি সূৰ্ব্বনাশই করলে —বলিয়া গোকুল সহসা আৰ্ত্তম্বরে কাদিয়া ফেলিল। বাড়ুস্ট্রেমশাই তাহাকে অনেক প্রকার সানা দিয়া এবং তাহার এ অবস্থায় কোনমতেই সেস্থানে যাওয়া হইতে পারে না বলিয়া, কালই হারাণের দ্বারা তাহাকে আনাইয়া দিবেন, : বার বার প্রতিজ্ঞ করিলেন। গোকুল নিৰুপায় হইয়। আর পাঁচখানি নোট হারাণের খরচের বাবা ধরিয়া দিয়া চোখ মুছিতে মুছিতে বাটা ফিরিয়া গেল। : ১১৩ >०ब-२६