পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (দশম সম্ভার).djvu/১৪০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ তাছাকে মুহূর্তের অবকাশ দেয় না । বিনোদ যেদিকে মুখ ফিরাইয়া চলিয়া যায়, গোকুল কাজের বঞ্চাটে ছঠাৎ সেই দিকেই আসিয়া পড়ে। এমনি করিয়া বেলা পড়িয়া আসিল । * অপরাহ্লবেলায় বিনোদ বসিবার ঘরে একলা বসিয়াছিল, একখানা কাগজ হাতে করিয়া গোকুল আসিয়া দাডাইল । অকারণে খানিকট কাঠ-হাসি হাসিয়া কহিল, কলিকাতার বাসা ছেড়ে তুমি হাজারিবাগে হঠাৎ চলে গেলে—বাবা মৃত্যুকালে—সে শুনচে বোধ হয়—সে একটা তামাসা আর কি ?—বলিয়া গোকুল পুনরায় শুষ্ক হাসির অভিনয় করিয়া কহিল, তা তোমার যেমন কাও, একটা খবর পর্য্যন্ত দেওয়া নেই। তা যাক, সে-সব হবে এখন—কাজটা চুকে যাক—একটা দানপত্র লিখলেই—বুঝলে না বিনোদ–গোটা-কয়েক টাকা শুধু বাজে-খরচ হয়ে যাবে-বুঝলে না—আর শালার লোক যা এখানকার—জানোই ত সব—বুঝলে না ভাই—তা সে কিছুই না —বাবাও বলে গেলেন বিষয়-আশয় তোমাদের দুই ভায়ের রইল, এ একটা শুধু বুঝলে না—তা যাক—সেজন্য কিছুই আটকাবে না। আর আমারও ত মেজাজের ঠিক নেই ভাই । এই লোহার সিন্দুকের চাবিট তুমি রাখ। আবার পণ্ডিতদের আহান করা হয়েছে,—কার কত বিদায়, কে কি দরের লোক, সে তুমি ঠিক করে না দিলে ত আর কেউ পারবে না । কিন্তু আমার ত এমন ফুরসৎ নেই যে দাড়িয়ে দু'দও তোমার সঙ্গে দুটো পরামর্শ করি —বলিয়া গোকুল চাবিটা এবং কাগজখানা কোনমতে স্বমুখে ধরিয়া দিয়া তাড়াতাড়ি প্রস্থানের উপক্রম করিল। ঘুম ভাঙিয়া অবধি এই কথাগুলাই সে মনে মনে মক্স করিতেছিল । বিনোদ হাত দিয়া সেগুলা ঠেলিয়া দিয়া কহিল, আমাকে এর মধ্যে আপনি জড়াবেন না—এ-সব আমি ছোব না । এক মুহুর্তেই গোকুলের দাতের হাসি পাথরের মত জমাট বাধিয়া গেল । তাহার সারাদিনের জল্পনা-কল্পনা বার্থ হুইবার উপক্রম করিল। কহিল, ছোবে না ? কেন ? বিনোদ কহিল, আমার আবশ্যক কি ? আমি বাইরের লোক, দু'দিনের জন্তে এসেচি—দু'দিন পরেই চলে যাব। গোকুল কহিল, চলে যাবে ? বিনোদ বলিল, যেতেই ত হবে । তা ছাড়া এ-সব টাকাকড়ির ব্যাপার। আমি দীন-দুঃখী, হিসাব মিলিয়ে দিতে না পারলে চোর বলে তখন আপনিই হয়ত আমাকে পুলিশের হাতে দিয়ে জেল খাটিয়ে ছাড়বেন। জবাব দিবার জন্য গোকুলের ঠোট-দুটা একবার কাপিয়া উঠিল মাত্র। তারপর ষ্ট্রেট হইয়া চাবি এবং কাগজ টা তুলিয়া লইয়া বাহির হইয়া গেল। পিতৃশ্ৰাদ্ধে জাক • סיל