পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (দশম সম্ভার).djvu/১৬৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


8वकू%व्र छैश्ल অত্যন্ত অন্যায় হইয়া গিয়াছে। অত্যন্ত মিথ্যা ও কুৎসিত অপবাদে অবিহিত কবির দাদাকে বিদায় করা হইয়াছে। সেই দাদা যে জীবনে কোনদিন এ-পথ মাড়াইৰে না, তাহ নিঃসংশয়ে বিনোদ বুঝিয়াছিল । দেশের কৃতবিদ্য যুবকদের অনেকেই বিনোদের বন্ধু। সকলেরই পূর্ণ সহানুভূতি বিনোদের উপরে। সেদিন সকালে তাহারা বাহিরের ঘরে বসিয়া মাস্টারমশাইকে ডাকিয়া আনিয়া অনেক বাদান্তবাদের পরে স্থির করিয়াছিলেন, কথার ফদে গোকুলকে জড়াইতে না পারিলে স্ববিধা নাই । গোকুল মুর্থ এবং অত্যন্ত নিৰ্ব্বোধ তাহা সকলেই বুঝিয়াছিলেন ; সুতরাং তাহাকে উত্তেজিত করিয়া তাহারই মুখের কথায় তাহাকেই জব্ব করিয়া সাক্ষীর স্বষ্টি করা কঠিন হইবে না। কথা ছিল আগামী রবিবার সকালবেলায় দেশের দশজন গণ্যমান্ত ভদ্রলোক সঙ্গে করিয়া গোকুলের বাটতে উপস্থিত হইয় তাহাকে কথার ফেবে বাধিতেই হইবে। এই প্রসঙ্গে কত তামস বিদ্রুপ অমুপস্থিত হতভাগ্য গোকুলের মাথায় বধিত হইল ; কে কি বলবেন এবং করিবেন, সকলেই একে একে তাহার মহড়া দিলেন, শুধু বিনোদ মাথা হেঁট করিয়া নীরবে বসিয়া রহিল । তাহার উৎসাহের অভাব নিজেদের উৎসাহের বাস্থল্যে কেহ লক্ষ্যই করিলেন না। আজ বিনোদ কাজে বাহির হয় নাই, আহারাদি শেষ করিয়া ঘরে বসিয়াছিল ; বেলা একটার সময় হঠাৎ গোকুল—কই রে হাবুর মা, খাওয়া-দাওয়া চুকল ? বলিয়া প্রবেশ করিল। হাবুর মা শশব্যস্তে বড় বাবুকে আসন পাতিয়া দিয়া কহিল, না বড়বাবু, এখনো শেষ হয়নি । হয়নি ? বলিয়া গোকুল আসনটা তুলিয়া আনিয়া রান্নাঘরের দাওয়ায় পাতিল । বসিয়া কহিল, এক গেলাস ঠাণ্ডা জল খাওয়া দিকি হাবুর মা । তাগাদায় বেরিয়ে এই দুপুর রোদরে ঘুরে ঘুরে একবারে হয়রান হয়ে গেছি। মা কই রে ? ভবানী রান্নাঘরেই ছিলেন ; কিন্তু সেদিনের কথা স্মরণ করিয়া বিপুল লজ্জায় হঠাৎ সম্মুখে আসিতেই পারিলেন না । বিনোদ কাজে গিয়াছে, ঘরে নাই,—গোকুল ইহাই জানিত। কহিল, সব মিথ্যে হাবুর বা, সব মিথ্যে। কলিকাল—আর কি ধৰ্ম্ম-কৰ্ম্ম আছে ? বাবা মরবার সময় মাকে আমাকে দিয়ে বললেন, বাবা গোকুল, এই নাও তোমার মা । আমি ভালো 为载镜