পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (দশম সম্ভার).djvu/১৭৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অনুরাধ জীর্ণতার শেষ সীমায় পৌঁছিয়াছে। একপাশে সারি সারি বসিবার ঘর ও বৈঠকখানা—দশা একই। পায়রা, চড়াই ও চামচিকার স্থায়ী আশ্রম বানাইয়াছে। দারওয়ান স্থাকিল, কোই হায় ? তাহার সন্ত্রমবিহীন চড়া-গলার চীৎকারে বিনোদ ঘোষ ও অন্যান্য অনেকেই যেন লজ্জায় সঙ্কুচিত হইয়া পড়িল । বিনোদ বলিল, স্বাধুদিদিকে আমি গিয়ে খবর দিয়ে আসচি বাৰু। বলিয়া ভিতরে চলিয়া গেল। তাহার কণ্ঠস্বর ও বলার ভঙ্গিতে বুঝা গেল, আজ ও এ-বাড়ির অমর্য্যাদা করিতে তাহাদের বাধে । অনুরাধ রাধিতেছিল ; বিনোদ গিয়া সবিনয়ে জানাইল, দিদি, ছোটবাবু বাইরে এসেচেন । সে এ দুদৈব প্রত্যহই আশঙ্কা করিতেছিল। হাত ধুইয়া উঠিয় দাড়াইল, সন্তোষকে ডাকিয়া কহিল, বাইরে একটা সতরঞ্চি পেতে দিয়ে এসে বাবা, বল গে মালীম আসচেন। বিনোদকে বলিল, আমার বেশী দেরি হবে না—বাবু রাগ করেন না যেন বিনোদদা, আমার হয়ে তাকে বসতে বলগে । বিনোদ লজ্জিত-মুখে কহিল, কি করর দিদি, আমরা গরীব , প্রজা, জমিদার হুকুম করলে না বলতে পারিনে, কাজেই— সে আমি বুঝি বিনোদদা । বিনোদ চলিয়া গেল । বাহিরে সতরঞ্চি পাতা হইল, কিন্তু কেহ তাহাতে বসিল না। বিজয় ছড়ি ঘুরাইয়া পায়চারি করিতে করিতে চুরুট টানিতে লাগিল । মিনিট-পাচকে পরে সন্তোষ বাহিরে আসিয়া ইঙ্গিতে দ্বারের প্রতি চাহিয়া সভয়ে কহিল, মাসীমা এসেচেন । বিজয় থমকিয় দাড়াইল । ভদ্রঘরের কন্যা, তাহাকে কি বলিয়া সম্বোধন করা উচিত, সে দ্বিধায় পড়িল । কিন্তু দৌৰ্ব্বল্য প্রকাশ পাইলে চলিবে না, অতএব পুরুষকণ্ঠে অন্তরালবৰ্ত্তিনীর উদ্দেশে কহিল, এ-বাড়ি আমাদের তুমি জানো ? উত্তর আসিল, জানি । তবে ছেড়ে দিচ্চো না কেন ? অম্রাধা তেমনি আড়ালে দাড়াইয়া বোনপোর জবানিতে বক্তব্য বলিবার চেষ্ট্র করিল, কিন্তু ছেলেটা চালাক-চোঁকশ নয়, নূতন জমিদারের কড়া মেজাজের জনশ্রীতিও তাহার কানে পৌঁছিয়াছে, ভয়ে ভয়ে কেবলি থতমত খাইতে লাগিল, একটু কথাও মুম্পষ্ট হইল না । ఆa اة ة سس الاه لا