পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (দশম সম্ভার).djvu/১৮৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ ভ্রমর-কৃষ্ণ । সম্মুখের গোটা-কয়েক ছাড়া দাঁতগুলি প্রায় সমস্ত বিদ্যমান। গায়ে তসরের কোট, গরদের চাদর, পারে চীনা-বাড়ির বার্নিশকরা জুতা, ঘড়ির সোনার চেন হইতে সোনা-বাধানো বাঘের নক ঝুলিতেছে। পল্লী-অঞ্চলে ভদ্রলোকটিকে অবস্থাপন্ন বলিয়াই মনে হয়। পাশে একটা ভাঙা টুলের উপর বিজয়ের চুরুটের সাজসরঞ্জাম থাকিত, সরাইয়া লইয়া স্তীহাকে বসিতে দিল। ভদ্রলোক বসিয়া বলিলেন, নমস্কার বাৰু। বিজয় কহিল, নমস্কার । আগন্তুক বলিলেন, আপনার গ্রামের জমিদার, মহাশয়ের পিতাঠাকুর হচ্ছেন কৃতি ব্যক্তি—লক্ষপতি। নাম করলে স্থপ্রভাত হয়—আপনি তারই স্বসস্তান । স্ত্রীলোকটিকে দয়া না করলে সে যে ভেসে যায়। কে স্ত্রীলোক ? কত টাকা বাকী ? ভদ্রলোক বলিলেন, টাকার ব্যাপার নয়। স্ত্রীলোকটি হচ্চে ঈশ্বর অমর চাটুয্যের কস্তা—প্রাতঃস্মরণীয় ব্যক্তি—গগন চাটুয্যের বৈমাত্রেয় ভগিনী। এ তার পৈতৃক গৃহ। সে থাকবে না, চলে যাবে—তার ব্যবস্থাও হয়েচে–কিন্তু আপনি যে তাকে ঘাড় ধরে তাড়িয়ে দিচ্চেন, এ কি মহাশয়ের কর্তব্য ? এই অশিক্ষিত বুদ্ধের প্রতি ক্রোধ করা চলে না বিজয় মনে মনে বুঝিল, কিন্তু কথা বলার ধরণে জলিয়া গেল। কহিল, আমার কর্তব্য আমি বুঝব, কিন্তু জাপনি কে যে তার হয়ে ওকালতি করতে এলেচেন ? বৃদ্ধ বলিলেন, আমার নাম জিলোচন গাঙলি, পাশের গ্রামে মসজিদপুরে বাড়ি— সবাই চেনে। আপনার বাপ-মায়ের আশীৰ্ব্বাদে আমার কাছে গিয়ে হাত পাততে হয় না এমন লোক এদিকে কম । বিশ্বাস না হয় বিনোদ ঘোষকে জিজ্ঞেস করবেন। বিজয় কহিল, আমার হাত পতিবার দরকার হলে মশায়ের খোজ নেব, কিন্তু ধার ওকালতি করতে এসেচেন তার আপনি কে জানতে পারি কি ? ভদ্রলোক রসিকতার ছলে ঈষৎ হাস্ত করিয়া বলিলেন, ফুটুৰ। বোশেখের এই ক’টা দিন বাদে আমি ওঁকে বিবাহ করব। বিজয় চকিত হইয়া কহিল, আপনি বিবাহ করবেন অকুরাধাকে ? অজ্ঞে ই । আমার স্থির সঙ্কল্প। জ্যৈষ্ঠ ছাড়া আর দিন নেই, নইলে এই মাসেই শুভকৰ্ম্ম সমাধা হয়ে যেত, থাকতে দেবার কথা আপনাকে আমার বলতেও হতো না । বিজয় কিছুক্ষণ স্তন্ধ থাকিয়া প্রশ্ন করিল, বিয়ের ঘটকালী করলে কে ? গগন চাটুধ্যে ? שרג