পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (দশম সম্ভার).djvu/২৫৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ শন্তু অত্যন্ত ভীত হইয়া উঠিল। ছোটবে স্বামীকে লক্ষ্য করিয়া বলিতে লাগিল, নিত্যি বলি দিদি, কোথায় যে নদীর ওপর সরকারি পুল হচ্ছে, কত লোক খাটতে যাচ্ছে, সেথায় নিয়ে গিয়ে ওরে কাজে লাগিয়ে দাও। তার চাবুক মারবে আর কাজ করাবে-পালাবার জোঁ-টি নেই—দু’দিনে সোজা হয়ে যাবে। তা না, ইস্কুলে দিয়েচি পড়ুক ! ছেলে যেন ওঁর উকিল-মোক্তার হবে। শম্ভু কাতর হইয়া বলিল, আরে সাধে কি দিইনি সেখানে! সবাই কি ঘরে ফিরতে পায়, অৰ্দ্ধেক লোক মাটি চাপা পড়ে কোথায় তলিয়ে যায় তার তল্লাসই মেলে न1 ।। - ছোটবে বলিল, তবে বাপ-ব্যাটাতে মিলে ফাটকে খাট গে যাও। বড়বে চুপ করিয়া রহিল। শম্ভু তাহার হাতটা ধরিয়া বলিল, আমি কালই ছোড়াকে নিয়ে গিয়ে পাচলার পুলের কাজে লাগিয়ে দেব বৌঠান, দাদাকে ঠাণ্ড কর । আর এমন হবে না । তাহার স্ত্রী কহিল, ঝগড়-বর্ণটি ত শুধু ঐ ড্যাকুরার জন্তে । তোমাকেও ত কতবার বলিচি দিদি, ওরে ঘরে- দোরে ঢুকতে দিয়ে না—আস্কার দিয়ে না। আমি বলিনে তাই, নইলে ও-মাসে তোমাদের মৰ্ত্তমান কলার কাদিটে রাত্তিরে কে কেটে নিয়েছিল ? সে ত ঐ দস্তি। যেমন কুকুর তেমন মুগুর না হলে কি চলে ? পুলের কাজে পাঠিয়ে দাও, পাড়া জুডুক । শম্ভু মাতৃদিব্য করিল যে, কাল যেমন করিয়া হোক ছোড়াকে গ্রাম-ছাড়া করিয়া তবে সে জল-গ্ৰহণ করিবে । গঙ্গামণি এ-কথাতেও কোন কথা কহিল না, হাতের কাঠটা ফেলিয়া দিয়া নিঃশব্দে বাড়ি ফিরিয়া গেল । স্বামী, ভাই এখনও অভূক্ত। অপরাহ্নবেলায় সে বিষণ্ণ-মুখে রান্নাঘরের দোরে বসিয়া তাহদের খাবার আয়োজন করিতেছিল, গয়ারাম উকি-ঝুকি মারিয়া নিঃশব্দপদে প্রবেশ করিল । বাটীতে আর কেহ নাই দেখিয়া সে সাহসে ভর করিয়া একেবারে পিছনে আসিয়া ডাক দিল, জ্যাঠাইমা ! জ্যাঠাইমা চমকিয় উঠলেন, কিন্তু কথা কহিলেন না। গম্বারাম অদূরে ক্লাস্তভাবে ধপাস করিয়া বসিয়া পড়িয়া কহিল, আচ্ছ যা আছে তাই দে, আমার বডড ক্ষিধে পেয়েচে । ఇస్రి