পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (দশম সম্ভার).djvu/৫৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ষোড়শী ষোড়শী । ( ভয়ে কণ্ঠস্বর তাহার কঁাপিতেছিল ) সাগর নেই— জীবানন্দ । নেই ? ব্যাটা গেল কোথায় ? ষোড়শী । আপনারা জানেন বলেই ত— জীবানন্দ । জানি বলে ? কিন্তু আপনার কারা ? আমি ত বাপও জানতাম नi | ষোড়শী । নিরাশ্রয় বলেই ত লোক নিয়ে আমার উপর অত্যাচার করতে এসেচেন ? কিন্তু আপনার কি করেছি আমি ? জীবানন্দ । লোক নিয়ে অত্যাচার করতে এসেচি ? তোমার প্রতি ? মাইরি না । বরঞ্চ, মন কেমন করছিল বলে ছুটে দেখতে এসেচি । ষোড়শীর চোখে জল আসিতেছিল, এই উপহাসে তাহা একেবারে শুকাইয়া গেল। জীবানন্দ অদূরে বসিয়া তাহার আনত মুখের প্রতি - লুব্ধ তৃষিত চক্ষে চাহিয়া বহিলেন ] জীবানন্দ । অলকা ? ষোড়শী। বলুন। জীবানন্দ । তোমার এখানে তামাক-টামাকের ব্যবস্থা বুঝি নেই ? ষোড়শী একবার মুখ তুলিয়াই অধোমুখে স্থির হইয়া রহিল । ] জীবানন্দ । ( দীর্ঘনিশ্বাস মোচন করিয়া ) ব্রজেশ্বরের কপাল ভালো ছিল । দেবীরাণী তাকে ধরিয়ে আনিয়েছিল সত্যি, কিন্তু অম্বুরী তামাকও খাইয়েছিল, এবং ভোজনাস্তে দক্ষিণাও দিয়েছিল। বিদায়ের পালাটা আর তুলব না, বঙ্কিমবাবুর বইখানা পড়েচ ত ? ষোড়শী । আপনাকে ধরে আনলে সেইমত ব্যবস্থাও থাকত-অঙ্গুযোগ করতে হ’তে না । জীবানন্দ ( হাসিয়া ) তা বটে। টানা- হেঁচড়া দড়িদড়ার বাধার্বাধিই মানুষের নজরে পড়ে। ভোজপুরী পেয়াদা পাঠিয়ে ধরে আনাটাই পাড়াশুদ্ধ সকলেই দেখে ; কিন্তু যে পেয়াদটিকে চোখে দেখা যায় না—ই অলক, তোমাদের শাস্ত্রগ্রন্থে তাকে কি বলে ? অতনু, না ? বেশ তিনি ! ( ক্ষণেক নীরব থাকিয়া ) যৎসামান্ত অনুরোধ ছিল ; কিন্তু আজ উঠি । তোমার অনুচরগুলো সন্ধান পেলে জামাই আদর করবে না । এমন কি, শ্বশুরবাড়ি এসেচি বলে হয়ত বিশ্বাস করতেই চাইবে না—ভাববে এাণের দায়ে বুঝি মিথ্যেই বলচি । [ লঙ্গয় যোড়শী আয়ও অবনত হইল । ] 8? పెళాgh