পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (দ্বিতীয় সম্ভার).djvu/২৯১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ধিরাজ-বেী সন্ধ্যাবেল স্বন্দরীর ঘরে গিয়া সব কথা পুনঃ পুনঃ শুনিয়া নীলাম্বর কহিল, পশ্চিমে যখন বেড়াতে গেছে, তখন সে নিশ্চয়ই ভাল আছে, না স্বন্দরী ? স্বন্দরী ঘাড় নাড়িয়া বলিল, ভাল আছে বৈ কি বাৰু। নীলাম্বরের মুখ প্রফুল্লভাব ধারণ করিল,—কত বড়টি হয়েচে দেখলি ? সুন্দরী হাসিয়া বলিল, দেখা ত হয়নি বাবু! নীলাম্বর নিজের প্রশ্নে লঙ্গিত হইয়া বলিল, তা বটে, কিন্তু দাসী-চাকরের কাছেও শুনলি ত ? না বাবু। তাব পিসশাউড়ি মার্গর যে কথাবার্তা, যে হাত-পা নাড়া, তাতে আর জিজ্ঞেস করব কি, পালতেই পথ পাইনি । নীলাম্বর ক্ষণকাল ক্ষুব্ধ-মুখে স্থির থাকিয়া কহিল, আচ্ছা, পুটি আমার রোগ হয়ে গেছে, কি একটু মোটাসোটা হয়েছে—তোর কি মনে হয় ? প্রশ্নের উত্তর দিতে দিতে স্বন্দরী ক্লাব হইয়া পড়িয়াছিল, সংক্ষেপে কহিল, মোটাসোটাই হ’য়ে থাকবে। নীলাম্বর আশান্বিত হইয়া উঠিল, প্রশ্ন করিল, শুনে এসেচিস্ ৰোধ করি, ন ? স্বন্দরী ঘাড় নাড়িয়া বলিল, শুনে কিছুই আসিনি। তবে জানলি কি করে ? এবার স্বন্দরী বিরক্ত হইল, কহিল, জানলুম আর কোথায় ? তুমি বললে আমার কি মনে হয়, তাই বললুম, হয়ত মোটাসোটা হয়েচে । নীলাম্বর মাথা নাড়িয়া মৃত্যুকণ্ঠে বলিল, তা বটে। তারপর কয়েক মুহূৰ্ত্ত স্বন্দরীর মুখের দিকে চুপ করিয়া চাহিয়া থাকিয়া একটা নিশ্বাস ফেলিয়া উঠিয়া দাড়াইল । কহিল, আজ তবে যাই স্বন্দরী, আর একদিন আসব। স্বন্দরী তখন ইফে ছাড়িয়া বাচিল । বস্তুতঃ তাহার অপরাধ ছিল না। একে ত বলিবার কিছুই ছিল না, তাহাতে ঘন্ট-দুই হইতে নিরস্তুর এক কথা একশ’ রকম করিয়া বকিয়া বকিয়াও সে নীলাম্বরের কৌতুহল মিটাইতে পারে নাই। তাড়াতাড়ি কহিল, ই বাবু, রাত হ’ল আজ এসে, আর একদিন সকালে এলে সব কথা হবে । এতক্ষণে নীলাম্বর স্বন্দরীর উৎকণ্ঠিত ব্যস্ততা লক্ষ্য করিল এবং "আসি বলিয়া চলিয়া গেল । স্বন্দরীর উৎকণ্ঠার একটা বিশেষ হেতু ছিল। এই সময়টায় ও-পাড়ার নিতাই গাঙ্গুলা প্রায় প্রত্যহই একবার করিয়া তাহার সংবাদ লইয়া পায়ের ধূলা দিয়া যাইতেন। তাহার এই ধুলাটা পাছে মনিৰের সাক্ষাতেই পড়ে, এই আশঙ্কায় সে মনে মনে কণ্টকিত হইয়া উঠিতেছিল। খদিও 文媛*命令