পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (দ্বিতীয় সম্ভার).djvu/২৯২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ নানা কারণে এখন কপাল ফিরিয়াছে এবং জমিদারের অনুগ্রহে লজ্জা গৰ্ব্বেই রূপান্তরিত হইয়া উঠিয়াছে, তথাপি এই নিষ্কলঙ্ক সাধুচরিত্র ব্রাহ্মণের সম্মুখে হীনতা প্রকাশ পাইবার সম্ভাবনায় সে লজায় মরিয়া যাইতেছিল। নীলাম্বর চলিয়া গেলে সে পুলকিতচিত্তে দ্বার বন্ধ করিতে আসিল। কিন্তু সম্মুখে চাহিতেই দেখিল, নীলাম্বর ফিরিয়া আসিতেছে। সে দোর ধরিয়া বিরক্তমুখে অপেক্ষা করিয়া রহিল। তাহার মুখে দ্বাদশীর চাদের আলো পড়িয়াছিল। নীলাম্বর কাছে আসিয়া একবাব ইতস্তত: কবিল, তাহার পর চাদরের খুট হইতে খুলিয়া একটি আধুলি বাহির করিয়া সলজ্জ মৃদুকণ্ঠে বলিল, তোর কাছে ত বলতে লজ্জা নেই সুন্দরী, সবই জানিস—এই আধুলিটি শুধু আছে, নে । বলিয়া হাতে তুলিয়া দিতে গেলে । সুন্দরী জিভ কাটিয পিছাইয়া দাডাইল । নীলাম্বর বলিল, কত কষ্ট দিলাম—যাওয়া-আসাব খরচ পর্য্যন্ত দিতে পারিনি । আর সে বলিতে পাবিল না, কান্নয় তাহার গলা বন্ধ হইয়া আসিল । সুন্দরী একমুহূর্ত কি ভাবিল, পরক্ষণে হাত পাতিয়া বলিল, দাও । তুমি যষ্টি হও, আমার চিরদিনের মনিব—আমার না’ বলা সাজে না । বলিয়া আধুলিটি হাতে লইয়া মাথায় ঠেকাষ্টয়া আঁচলে বাধিতে বাধিতে বলিল, তবে অার একবার ভিতরে এসো, বলিয়া ভিতরে চলিয়া আসিল । নীলাঙ্গর পিছনে পিছনে উঠানে আসিয়া দাডাইল । সুন্দর ঘরে ঢুকিয়া মিনিট-খানেক পরে ফিরিয়া আসিয়া নীলাম্বরের পায়ের কাছে একমুঠ টাকা রাখিয়া ভূমিষ্ট হইয়া প্রণাম করিয়া পায়ের ধুলা মাথায় লষ্টয়া উঠিয় ট্রাডাইল । নীলাম্বর বিস্ময়ে হতবুদ্ধি হইয়া আছে দেখিয়া, সে ঈষৎ হাসিয়া বলিল, অমন করে চেয়ে থাকলে ত হবে না বাবু, আমি চিরকালেব দাসী, শুদূর হলেও এ জোর শুধু আমারই আছে, বলিয়া হেঁট হইয়া টাকাগুলি তুলিয়া চাদরে বাধিয়া দিতে দিতে মুম্বুকণ্ঠে বলিল, এ তোমারই দেওয়া টাকা বাবু, তীর্থ করব বলে দেবতার নামে তুলে রেখেছিলুম—আর যেত হ’ল না—দেবতা নিজে ঘরে এসে নিয়ে গেলেন। নীলাম্বর তখনও কথা কহিতে পারিল না। বেশ করিয়া বাধিয়া দিয়া সে বলিল, বোমা একলা আছেন, আর না, যাও-কিন্তু একথা যেন কিছুতেই না জানতে পারেন। নীলাম্বর কি একটা কথা বলিতে গেল, স্বন্দরী বাধা দিয়া বলিয়া উঠিল, হাজার হলেও শুনব না বাৰু। আজ আমার মান না রাখলে আমি মাথা খুঁড়ে মরব। তাহার হাতের মধ্যে তখনও চাদরের সেই অংশটা ধরা ছিল, এমন সময় “কি হচ্ছে গে৷ ” বলিয়। নিতাই গাজুলী খোলা দরজার ভিতর দিয়া একেবারে প্রাঙ্গণে আসিয়া দাড়াইল । সুন্দরী চার ছাড়িয়া দিল । به سياج