পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (প্রথম সম্ভার).djvu/১৫০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ তার চেয়ে সরকারমশায়কে ডেকে নিয়ে আয় । প্রমীলা সরকারমশায়কে ডাকিয়া আনিলে, মাধবী বলিয়া দিল—মাস্টারবাবু চশম হারিয়েছেন, ভাল দেখে একটা কিনে দাওগে । সরকার চলিয়া গেলে, সে মনোরমাকে পত্র লিখিল, শেষে লিখিয়া দিল— প্রমীলার জন্য বাবা একজন শিক্ষক নিযুক্ত করিয়াছেন—তাহাকে মানুষ বলিলেও হয়, ছোট ছেলে বলিলেও হয়। আমার বোধ হয়, ইহার পূৰ্ব্বে সে কখনও বাটীর বাহির হয় নাই–সংসারের কিছুই জানে না। তাহাকে না দেখিলে, না তত্ত্ব লইলে তাহার এক দণ্ডও চলে না। আমার অৰ্দ্ধেক সময় সে কাড়িয়া লইয়াছে—তোমাদের পত্র লিখিব আর কখন ? এখন যদি তোমার শীঘ্র আসা হয়, তাহা হইলে, এই অকৰ্ম্মণ্য লোকটিকে দেখাইয়া দিব। এমন অকেজে, অন্তমনস্ক লোক, তুমি জন্মে দেখ নাই। থাইতে দিলে খায়, না দিলে চুপ করিয়া উপবাস করে। হয়ত সমস্ত দিনের মধ্যেও তাহার মনেও পড়ে না যে, তাহার আহার হইয়াছে কি না! একদিনের জন্যও সে আপনাকে চালাইয়া লইতে পারে না । তাই ভাবি এমন লোক সংসারে বাহির হয় কেন ? শুনিতে পাই, তাহার পিতামাতা আছেন, কিন্তু আমার মনে হয় তাদের পাথরের মত শক্ত প্ৰাণ । আমি ত বোধ হয়, এমন লোককে চক্ষের আড়াল করিতে পারিতাম না ! মনোরমা তামাশা করিয়া উত্তর লিখিল—তোমার পত্রে অন্যান্য সংবাদের মধ্যে জানিতে পারিলাম যে, তুমি বাড়িতে একটি বাদর পুষিয়াছ, আর তুমি তার সীতাদেবী হইয়াছ। কিন্তু তবু একটু সাবধান করিয়া দিতেছি । ইতি— মনোরমা । পত্র পড়িয়া মাধবীর মুখ ঈষৎ রঞ্জিত হইয়া উঠিল। সে উত্তর লিখিল—তোমার পোড়া মুখ, তাই কাহাকে কি ঠাট্টা করিতে হয়, জান না। মাধবী জিজ্ঞাসা করিল, প্রমীলা, তোমার মাস্টারমশায়ের চশমা কেমন হয়েছে ? প্রমীলা বলিল, বেশ । কেমন ক’রে জানলে ? মাস্টারমশায় সেই চশমা দিয়ে বেশ বই পড়েন—তাই জানলুম। মাধবী কহিল, তিনি নিজে কিছু বলেননি ? কিছু না । একটি কথাও না ? ভাল হয়েছে, কি মন্দ হয়েছে, কিছু না ? ন, কিছু না। 30%