পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (সপ্তম সম্ভার).djvu/২১৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


গৃহদাহ এবং রাজবধু ভাগিনেীর সংস্রবে সম্ভবতঃ লোকজন কিছু বেশি আসিবে। আজ র্তাহার বাটতে কাজ কম ছিল না। উপরন্তু আকাশের গতিকও ভাল ছিল না । কিন্তু পাছে জল আসিয়া পড়ে, পাছে যাওয়ার বিঘ্ন ঘটে, এই ভয়ে রামবাৰু বেলা পড়িতে-না-পড়িতে এক্কা ভাড়া করিয়া, বকশিশের আশা দিয়া ক্রত হাকাইতে অনুরোধ করিলেন । কিন্তু পথেই জলো হাওয়ার সাক্ষাৎ মিলিল এবং এ-বাটতে আসিয়া যখন উপস্থিত হইলেন, তখন কিছু কিছু বর্ষণও শুরু হইয়াছে। অচলা বাহির হইয়া কহিল, এই দুর্য্যোগের মধ্যে আজ আবার কেন এলেন জ্যাঠামশাই ? আর একটু হলেই ত ভিজে যেতেন। তাহার মুখে বা কণ্ঠস্বরে ভাবী আনন্দের চিহ্নমাত্র না দেখিয়া বুড়ার মন দমিয়া গেল। এজন্য তিনি একেবারেই প্রস্তুত ছিলেন না -কে যেন তাহার কল্পনার মালাটাকে একটানে ছিড়িয়া দিল। তথাপি মুখের উৎসাহ বজায় ব্ৰাধিয়া কহিলেন, ওরে বাস রে, তা হলে কি আর রক্ষ ছিল, জলে ভেজাটাকে সামলাতে পারব, কিন্তু ত্যজ্যপুত্র হয়ে চিরটা কাল কে থাকবে মা ? এই দুৰ্ব্বোধ মেয়েটাকে বুড়া কোনদিনই বেশ ভাল করিয়া চিনিতে পারেন নাই। বিশেষত: কাল রাত্রির ব্যবহারে ত বিস্ময়ে হতবুদ্ধি হইয়া গিয়াছিলেন । কিন্তু তাহার আজিকার আচরণে যেন একেবারে দিশাহারা, আত্মহারা হইয়া গেলেন । সে যে কোনকালে, কোন কারণেই ওরূপ করিতে পারে, তেমন স্বপ্ন দেখাও যেন অসম্ভব। কথা ত মাত্র এইটুকু। কিন্তু সঙ্গে সঙ্গে মেয়েটা ঠিক পাগল হইয়া গিয়া একেবারে ছুটিয়া আসিয়া তাহার বুকের উপর উপুড় হইয়া ছছ স্বরে কাদিয়া উঠিল । বলিল, জ্যাঠামশাই, কেন আমাকে আপনি এত ভালবাসেন-আমি যে লজ্জায় মাটির সঙ্গে মিশে যাচ্ছি । অনেকক্ষণ পৰ্য্যস্ত বৃদ্ধ কোন কথা কহিতে পারিলেন না, শুধু এক হাতে তাহাকে বুকের উপর চাপিয়া রাখিয়া অন্য হাতে মাথায় হাত বুলাইয়া দিতে লাগিলেন। র্তাহার স্নেহার্জ চিত্ত সেই-সব সামাজিক অমুমোদিত বিবাহের কথা, আত্মীয়-স্বজন, হয়ত বা বাপ-মায়ের সহিত বিদ্রোহ-বিচ্ছেদের কথা, বিবাদ করিয়া গৃহত্যাগের কথা—এইসকল পুরাতন, পরিচিত ও বহুবারের অভ্যন্ত ধারা ধরিয়াই যাইতে লাগিল, কিন্তু কিছুতেই আর একটা নতুন খাদ খনন করিবার কল্পনামাত্র করিল না। এমনি করিয়া এই নিৰ্ব্বাকু বৃদ্ধ ও রোরুদ্যমান তরুণী বহুক্ষণ একভাবেই দাড়াইয়া রহিলেন। তারপরে চুপি চুপি বলিতে লাগিলেন, এতে আর লজ্জা কি মা। তুমি আমার মেয়ে, তুমি আমার সেই সতীলক্ষ্মী মা, অনেককাল আগে কেবল ছুদিনের জন্ত আমার কোলে এসেই চলে গিয়েছিলে—মায়া কাটাতে না পেরে আবার বাপের বুকে ফিরে এসেচ-আমি যে তোমাকে দেখেই চিনতে পেরেছিলাম 있》