পাতা:শারদোৎসব - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/২২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ছেলেটিই তো আজ সারদার বরপুত্র হয়ে তার কোল উজ্জল করে বসেছে । তিনি তার আকাশের সমস্ত সোনার আলো দিয়ে ওকে বুকে চেপে ধরেছেন । আহা, আজ এই বালকের ঋণশোধের মতো এমন শুভ্র ফুলটি কি কোথাও ফুটেছে, চেয়ে দেখে তো ! লেখে, লেখে, বাবা, তুমি লেখে, আমি দেখি ! তুমি পঙক্তির পর পঙক্তি লিখছ, আর ছুটির পর ছুটি পাছ – তোমার এত ছুটির আয়োজন আমরা তো পণ্ড করতে পারব না। দাও বাবা, একটা পুথি আমাকে দাও, আমিও লিখি । এমন দিনটা সার্থক হোক । ঠাকুরদাদা আছে আছে,চশমাটা টেকে আছে, আমিও বসে যাই-না। প্রথম বালক ঠাকুর, আমরাও লিখব। সে বেশ মজা হবে । দ্বিতীয় বালক হা হা, সে বেশ মজা হবে । উপনন্দ বল কী ঠাকুর, তোমাদের যে ভারী কষ্ট হবে । সন্ন্যাসী সেইজন্তেই বসে গেছি । আজ আমরা সব মজা করে কষ্ট করব। কী বল বাবা-সকল । আজ একটা কিছু কষ্ট না করলে আনন্দ হচ্ছে না । २ ?