পাতা:শিক্ষানবিশের পদ্য.pdf/১২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
বন্দীর বিলাপ।

প্রাচীন গভীর কারা নামেতে শীলন
গর্ভ মধ্যে সপ্ত স্তম্ভ গথিক গঠন,
স্থূলকায় স্তম্ভচয় কপিশ মলিন
বন্দকরা মন্দকরে শুভ্রকান্তি হীন;
প্রাচীর ঈষৎ ভঙ্গ, ভেদি তাই কারা-অঙ্গ
পথ ভুলি রবিকর প্রবেশিয়া সেই ঘর
ভিতরের ভিত্তিভাগে পড়িত, রহিত,
ধীরি ধীরি ক্রমে চলে রসাতল কারাস্থলে
আলেয়া আলোক মত ভ্ৰমণ করিত;
বেড়িতে বেষ্টিত ছিল পিলুপা সকল,
বেড়িতে লাগান ছিল লোহার শিকল,
—লোহার শৃঙ্খল সেই কঙ্কর দশন—
বিঁধিয়াছে অঙ্গে কত রয়েছে এখন,
সেই শৃঙ্খল লাঞ্ছন আর হবে না মোচন
যতদিন নবরবি হেরিবে লোচন।
রবির কিরণ জাল, হেরি নাই কতকাল
নয়নে লাগিছে তাই যেন তপ্ত শূল
কেবা গণে কত কাল? এবে সব ভুল!