পাতা:শিখগুরু ও শিখজাতি.pdf/১২৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


স্বাদশ অধ্যক্ষ - 3ఫి হইলেন। শতক্ৰনদীর দক্ষিণ তীরবর্তী কোনো কোনো শিথনায়ক এই সময়ে মারাঠাদের সহিত যোগদান করিয়া ইংরাজদের বিরুদ্ধে অস্ত্ৰধারণ করিয়াছিলেন। ১৮৯৪ খৃষ্টাবে শিখনারকের পুনঃ পুনঃ ইংরাজরাজ্য আক্রমণ করিতেছিলেন । - ১৮ই ডিসেম্বর কর্ণেল বারন তাহাদিগকে এক যুদ্ধে পরাজিত করেন । ঝিন্দের রাজা ভাগসিং ও কৈখালের ভাই লাল সিং এই সময়ে ইংরাজের আনুগত্য স্বীকার করিয়াছিলেন, অধিকাংশ শিখনায়কই শতক্রর উত্তরতীরে আশ্রয় লইলেন। ১৮-৪ খষ্টাব্দের অক্টোবর মাসে যশোবন্ত রাও হোলকার কর্ণেল মনসনের সৈন্যদলকে পরাজিত করিয়া সসৈন্তে দিল্লী অবরোধ করেন । কর্ণেল অক্টারলনি ও কর্ণেল বীরনের সহিত সংগ্রামে তিনি পরাজিত । হইলেন। বিজয়লক্ষ্মী মারাঠাদের প্রতি বিমুখ হইলেন—দুইমাস পরে তাহারা আবার ফতেগড় ও টিগের যুদ্ধে হারিয়া গেল-মারাঠানায়ক হোলকার সৈম্ভবল হারাইয়া চতুর্দিক অন্ধকার দেখিতে লাগিলেন । তিনি সৈন্তসংগ্ৰহ-মানসে শতদ্রুর দক্ষিণতীরবর্তী শিখপ্রদেশে গমন করেন । ছয়মাস কাল তিনি পাতিয়ালায় ছিলেন, সেখানকার মহারাজ তাহাকে সাহায্য করিতে সাহসী হইলেন না । এই অঞ্চলের অপর কোনো শিখনায়কও উহাকে সাহায্যপ্রদানে অগ্রসর হইলেন না। ১৮৯৫ খৃষ্টাম্বের অক্টোবর মাসে লর্ড লেক আবার বিপন্ন হোলকায়কে আক্রমণ করিলেন ; তিনি ভীত হইয়া পলায়নপূর্বক . অমৃতসরনগরে গমন করেন এবং মহারাজ রণজিৎসিংহের সহায়তা প্রার্থনা করেন । তেজশ্বী রণজিৎ শরণাগত হোলকাকে সাহায্য করিতে প্রস্তুত ছিলেন ; কিন্তু তাছার বস্তুৰৰ্গ বিরোধী হইয়া পড়িলেন। এই সময়ে বিলাকের কোর্ট-অৰ-ডাইরেক্টর মারকুইস অব ওয়েলেসলির রাজ্যবিস্তার নীতির বিরোধী হইলেন—তাহার ক্রপ্ত