পাতা:শিখগুরু ও শিখজাতি.pdf/১৭০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অষ্টাদশ অধ্যায় > 8 ×. এই সময়ে শিখসর্দারের এক সভায় মহারাজ রণঞ্জিতের সৰ্ব্বকনিষ্ঠ পুত্র দলিপ সিংহকে রাজা নিৰ্ব্বাচন করেন। হীরা সিংহ উজীর নিযুক্ত হইলেন। বিদ্রোহ থামিল ন-সৈন্তের আবার ক্ষেপিয়া উঠিল— তাহারা যুরোপীয় কৰ্ম্মচারীদিগকে তাড়াইয়া দিবার জষ্ঠ অনুরোধ জানাইল । সৈন্তাদের দাবী অগ্রাহ করিবার সাধা কাহারো ছিল না । ও দিকে ধ্যান সিংহের এক ভ্রাতা উজীর পদ দাবী করিয়া ভ্রাতু-পুত্রের সহিত বিরোধে প্রবৃত্ত হইলেন। হীরা সিংহের সহিত বিবাদে তাহার পিতৃব্য নিহত হইলেন । রাজপদ লইয়াও বিরোধ আরম্ভ হইল, কতিপয় শিথ-সর্দারের প্ররোচনায় রাজকুমার কাশ্মীর সিংহ ও পেশওয়ার সিংহ রাজপদ-প্রার্থী হইলেন। দলিপ সিংহের জননীর ষড়যন্ত্রে কুমারদ্বয় নিহত হইলেন। যে মন্ত্রীর সহায়তায় তাহার পুল রাজপদ লাভ করিয়াছিলেন তাহাকেও তিনি হত্যা করিতে সঙ্কুচিত হইলেন না। রাণী তাহার সহোদর জোয়াহির সিংহকে ঐ মন্ত্রি-পদে নিযুক্ত করেন। সৈঙ্গের রাণীর অনাবস্তৃক হত্যাকাণ্ডে উত্তেজিত হইয়া উঠিল । তাহার রাণীর সহোদর জোয়াহির সিংহকে সমস্ত আনর্থের মূল বিবেচনা করিয়া তাহার প্রতি ক্রুদ্ধ হইল জোয়াহির সৈন্যদলের সমক্ষে আত্মদোষ স্বীকার করিয়া ক্ষম প্রার্থনা করিবার নিমিত্ত অনুরুদ্ধ হইলেন। তিনি তাহদের এই অনুরোধ অবজ্ঞাভরে অগ্রাহ করিলেন । সৈন্তের ক্ৰোধোন্মত্ত হইয়া রাণীকে জানাইল—“ আপনি আপনার সহোদরকে লইয়া আমাদের শিবিরে উপনীত হইবেন, অন্যথা আমরা আপনার পুত্রকে সিংহাসনচ্যুত করিব।” রাণী বিপন্ন হইলেন, উন্মত্ত সৈন্যদের আদেশ লঙ্ঘন করিবার সাহস তাহার ছিল না । রাণী স্বীয় পুত্র ও সহোদরকে সঙ্গে লইয়া সেনানিবাসে উপস্থিত হইলেন। ভ্রাতার জীবনরক্ষার জন্ত রাণী নানারূপ চেষ্টা করিলেন কিন্তু তাহার সমস্ত ।