পাতা:শিখ-ইতিহাস.djvu/১৯৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শিখদিগের স্বাধীন রাজ্য Σ ΦΣ) পার্বত্য প্রদেশাভিমুখ গমন করিয়া জালামুখীর স্বভাবজাত অগ্নিশিখায় স্বধৰ্মান্থযায়ী উপাসনা সমাপন করিতে চেষ্টাম্বিত হইলেন (৩৮ এই সময়ে উচ্চাকাঙ্ক্ষার বশবর্তী হইয়া কটোচের সংসার চাদ হ্মবিমূৰ্য্যকারিতা সহকারে ‘গুধর্ণ’দিগের সহিত ঘোরতর যুদ্ধে প্রবৃত্ত হন । তাহাতে র্তাহার ক্ষমতা অনেকাংশে লাঘব হয়। অধ্যবসায়শীল সুদক্ষ শিখ-সর্দার, প্রাচীন পার্বত্য রাজন্তবৃন্দের সকলকেই সেই সাধারণ শত্রুর বিরুদ্ধে উত্তেজিত করিয়া, একত-বন্ধনে আবদ্ধ করিতে করিতে পারিতেন। তৎকালে তাহারা সকলেই ঘাড়োয়াল হইতে কর সংগ্ৰহ করিতেছিলেন। কিন্তু প্রভুত্ব-প্রতিষ্ঠার এক উৎকট লালসার ও মুবতী হইয়া, সংসার চাদ কালুরের ( বা বিলাসপুরের ) সর্দারের ক্ষমতা হ্রাস করিয়াছিলেন ; সেই হীনবল শিখসর্দার অনন্তোপায় হইয়া নেপাল-সেনাপতির আশ্রয় গ্রহণ করাই শ্রেয়ঃ মনে করিলেন । উমার সিং থাপা হৃষ্টচিত্তে অগ্রসর হইলেন । শক্রদিগের প্রতি এই প্রথম আক্রমণে, নালাগড়ের সর্দার-যুবক, সংসার চাদের সহায়তা করিলেন। গুখী সেনাপতির আগমনে, তিনি বীরোচিত তেজস্বিতার সহিত বাধা প্রদান করিতে লাগিলেন । কিন্তু তাহার এত বীরত্ব এত বাধা সত্বেও, ১৮০৫ খ্ৰীষ্টাব্দের শেষ ভাগে শতদ্রু এবং যমুনার মধ্যবর্তী বিশাল রাজ্যখণ্ডে গুখা-প্রভুত্ব প্রতিষ্ঠিত হইল। সেই বৎসর উমার সিং শতদ্রু অতিক্রম করিয়া কাঙড় অবরোধ করিলেন। জালামুখী পরিদর্শন কালে, সংসার চাঁদ রণজিৎ সিংহের নিকট সাহায্য প্রার্থনা করেন। কিন্তু সেই স্বধৃঢ় দুর্গাধিকারে বহু ধন-প্রাণ নাশের আশঙ্কায়, সংসার চাদ তাহার সাহায্য প্রাপ্ত হ’লেন না ; সংসার চাঁদ স্বয় ক্ষমতার উপর নির্ভর করিতে বাধ্য হইলেন। সুতরাং বিদেশীয় শক্রগণকে বিতাড়িত করিবার কোনই ব্যবস্থা-বন্দোবস্ত হইল না ।৩৯ - cv | atta-fāfēts ‘ątfās fir', «», s. Įėl gènJI (Murray's Runjeet Singh', p. 59, 60 ) ১৮•৯ খ্ৰীষ্টাব্দের ১৭ই জুন, সার চার্লস মেটকাফ গবর্ণমেণ্টের বরাবর এক পত্র লেখেন। তাহাতে জানা যায়- তৎকালে, ১৮০৬ খ্ৰীষ্টাব্দে, রণজিৎ সিং এত শক্তিশালী ছিলেন না যে, তিনি কেবলমাত্র বল প্রয়োগে মালোয়া শিখদিগের ক্রিয়াকলাপে বাধা প্রদান ফরিতে সমর্থ হইতেন । ১৮৭৯ খ্ৰীষ্টাব্দের ১৪ই ফেব্রুয়ারী ও ৭ই মার্চ, ১৮১১ খ্ৰীষ্টাব্দের ৩০শে জুলাই সার ডেভিড অক্টারলোণি যে সকল পত্র প্রেরণ করেন, তাহাতে জানা যায়- পাতিয়ালার রাজা এবং অস্তান্ত সর্দারগণের সহিত ১৮•৫ খ্ৰীষ্টাব্দে পরস্পর পরস্পরের সাহায্য কল্পে যে সন্ধি-বন্দোবস্ত হয়, তৎকালে অন্ততঃ সে বন্দোবস্ত নষ্ট হইয়াছিল। ৩৯ । মারে-বিরচিত রণজিৎ সিং, ৬০ পৃষ্ঠা ; এবং মুরক্রফটের ভ্রমণ-বৃত্তাস্ত', প্রথম খণ্ড, ১২৭ ofti &isits 1 (Compare Kurray's Runjeet Singh', p. 60; and Moorcrofts "Travels', I. 127 &c.) প্রাচীন রাজপুত সৈন্তগণকে বিদায় দিয়া গোলাম মহম্মদ নামক জনৈক আশ্রয়-প্রার্থী রোহিল৷ সর্দারের পরামর্শে সংসার চাদ আফগান সৈন্ত নিযুক্ত করেন। তিনি বলেন-এই অপরিণামর্ণিতাই ওর্থাদিগের নিকট র্তাহার পরাজয়ের একমাত্র কারণ।